• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০

নান্দাইলে বিদ্যালয়ের সরকারি বই বিক্রি,  প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত


নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি জানুয়ারি ২৫, ২০২৪, ০৯:১২ পিএম
নান্দাইলে বিদ্যালয়ের সরকারি বই বিক্রি,  প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত

ছবি প্রতিনিধি

নান্দাইল: ময়মনসিংহের নান্দাইলে সরকারি বই বিক্রির অপরাধে আনওয়ারুল হোসেন খান চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের নির্দেশ এবং ম্যানেজিং কমিটির সভায় বৃহস্পতিবার  (২৫ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় তার বিরুদ্ধে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইয়াসের খান চৌধুরী।

গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার আনওয়ারুল হোসেন খান চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ ও সহকারী শিক্ষক মাওলানা নাজিম উদ্দিনের যোগসাজশে বিদ্যালয়ের ২০২২ ও ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের ৬ষ্ট থেকে ১০ম শ্রেণির প্রায় পাঁচ হাজার সরকারি বই বিক্রির সময় বইভর্তি একটি পিকআপ আটক করে স্থানীয়রা৷

পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আটক পিকআপসহ বই উপজেলায় নিয়ে যান। এ বিষয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বই বিক্রির বিষয়ে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠনের মাধ্যমে তদন্ত করেন।

গত ৪ জানুয়ারি ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসক বই বিক্রির বিষয়টি কর্মকর্তাদের তদন্তে সত্য ও অপরাধ বলে প্রমানিত করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বরাবর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চিঠি প্রেরণ করেন।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) ম্যানেজিং কমিটির সভায় প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ কে সভায় সবার সম্মতিক্রমে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

আনওয়ারুল হোসেন খান চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ বলেন- ম্যানেজিং কমিটির আমাকে বহিষ্কার করেছে। এ বিষয়ে আমার কিছু বলার নেই। তার যা ভাল মনে করেছে তাই করেছে।

আনওয়ারুল হোসেন খান চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইয়াসের খান চৌধুরী মুঠোফোনে বলেন- বিদ্যালয় থেকে সরকারি বই কেজি দামে বিক্রির বিষয়টি তদন্তে সত্য ও অপরাধ বলে প্রমানিত হয়েছে মর্মে জেলা প্রশাসক আমাকে চিঠি দিয়েছেন। এবং ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে বিধি মোতাবেক তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

নান্দাইল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোফাখখারুল ইসলাম জানান প্রধান শিক্ষক কে বহিষ্কারের খবর শুনেছি। তবে আমাদের কাছে কোন চিঠি এসে পৌঁছায়নি।

ওয়াইএ

Wordbridge School
Link copied!