• ঢাকা
  • সোমবার, ২২ এপ্রিল, ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১

ভাঙ্গুড়ায় নিবন্ধন থাকলেও হালনাগাদ লাইসেন্স নেই অধিকাংশ ক্লিনিকের


ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪, ০৩:১৬ পিএম
ভাঙ্গুড়ায় নিবন্ধন থাকলেও হালনাগাদ লাইসেন্স নেই অধিকাংশ ক্লিনিকের

ছবি প্রতিনিধি

ভাঙ্গুড়া: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা থাকলেও পাবনার ভাঙ্গুড়ায় নিবন্ধন হালনাগাদ না থাকা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান পরিচালনা করেনি স্বাস্থ্য প্রশাসন। উপজেলার এসব ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার অবৈধভাবে স্বাস্থ্যসেবার নামে বাণিজ্য চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এর আগে, অভিযান চালালেও এবার রহস্যজনকভাবেই প্রশাসন নীরব।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ভাঙ্গুড়া পৌর সদরে চারটি ক্লিনিক ও সাতটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েছে। এর মধ্যে ভাঙ্গুড়া বাজারে অবস্থিত নিরাপদ হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও নিউ বড়াল ডায়াগনস্টিক সেন্টারের হালনাগাদ নিবন্ধন রয়েছে। শহরের শরৎনগর বাজারে অবস্থিত হেলথ কেয়ার ক্লিনিকে গত অর্থবছরের নিবন্ধন রয়েছে। শরৎনগর বাজারের অন্যতম বৃহৎ বড়াল ক্লিনিকে তিন বছর ধরে নিবন্ধন হালনাগাদ নেই।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম সোনালীনিউজকে বলেন, ‘ভাঙ্গুড়াতে কোনো অনিবন্ধিত ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার নেই। তবে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন হালনাগাদ নেই। সিভিল সার্জন অফিসের নির্দেশ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

পাবনা সিভিল সার্জন ডাক্তার দেওয়ান শহীদুল্লাহ বলেন, পাবনা জেলায় ২৪২টি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েছে। সব ক্লিনিকের নিবন্ধন রয়েছে। যদিও অনেকের নিবন্ধনের হালনাগাদ নেই। সব ক্লিনিক মালিককে নির্দিষ্ট কিছু সময় দেওয়া হয়েছে নিবন্ধন হালনাগাদের জন্য। সেই জন্যই অভিযান পরিচালনা করা হয়নি।

ওয়াইএ
 

Wordbridge School
Link copied!