• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

বঙ্গমাতা পুরস্কার পাচ্ছেন সেলিমা আহমাদ এমপিসহ ৫ নারী


নিজস্ব প্রতিবেদক জুলাই ২০, ২০২২, ০৭:৫৮ পিএম
বঙ্গমাতা পুরস্কার পাচ্ছেন সেলিমা আহমাদ এমপিসহ ৫ নারী

বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব।ফাইল ছবি:

ঢাকা: বঙ্গমাতার অবদান চিরস্মরনীয় করার লক্ষ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের লক্ষ্যে ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব’ শীর্ষক সর্বোচ্চ জাতীয় পদ প্রবর্তন করেছে সরকার। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যেগে আগামি ৮ আগস্ট বঙ্গমাতার ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন করা হবে। এবারের প্রতিপাদ্য হলো ‘মহীয়সী বঙ্গমাতার চেতনা, অদম্য বাংলাদেশের প্রেরণা’। 

এই দিনে ৮টি বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসামান্য অবদান বিবেচনায় ৫ জন বাংলাদেশী নারীকে এই পদক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় পুরষ্কার সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ২৭ জানুয়ারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদকের জন্য মনোনয়ন আহবান করে ৭টি পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আবেদনের শেষ দিন ছিল ৮ মার্চ। নির্ধারিত এই সময়ের মধ্যে ৭২টি আবেদন জমা হয়। নির্ধারিত সময়ের পরে আরো ৪৪টি আবেদন সরাসরি ও ইমেইলের মাধ্যমে জমা পড়ে। 

গত ৬ জুন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক-২০২২ প্রদানের জন্য প্রার্থী বাছাই কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। বাছাই কমিটির সভায় ৫টি বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভায় অধিক সংখ্যক সম্ভবনায় প্রার্থী বিবেচনার সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে বিলম্বে প্রাপ্ত ৪৪টি আবেদনসহ ১১৬টি আবেদন সভায় উপস্থাপন ও বিবেচনার সিদ্ধান্ত গৃহীয় হয়। সম্মিলিত তালিকায় ক্রমিক ৪৮ নং আবেদনকারী সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ সমাজ সেবা ক্যাটাগরীতে আবেদন করেছেন কিন্তু দেশে নারী উদ্যেক্তা সৃস্টি, ব্যবসায় বাণিজ্যে ও অর্থনীতিতে তার ভূমিকা বিচেনায় তাকে অর্থনীতি ক্যাটাগরীতে মনোনয়ন প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সম্মিলিত তালিকার ক্রমিক ১১১ নং আবেদনকারী সৈয়দা জেবুন্নেছা হক রাজনীতি ও সমাজসেবা ক্যাটাগরীতে আবেদন করেছেন। তার আবেদন পর্যালোচনা করে তাকে রাজনীতি ক্যাটাগরীতে মনোনয়ন প্রদানের জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। কৃষি ও পল্লিউন্নয়ন ক্যাটাগরিতে আবেদনকারীদের আবেদন পর্যালোচনায় উপযোগী কোন প্রার্থী বিবেচিত না হওয়ায় এ ক্যাটাগরীতে কাউকে সুপরিশ না করার সিদ্ধান্ত গ্রহীত হয়। 

ক্যাটাগরিভিত্তিক সকল আবেদন সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে ৮ জন আবেদনকারীকে প্রাথমিক তালিকায় অর্ন্তভূক্তিক্রমে সুপারিশসহ জাতীয় পুরষ্কার সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বিবেচনার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে প্রেরণের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

প্রার্থী বাছাই কমিটির এই সিদ্ধান্তের ওপর গত ৫ জুলাই এই বিষয়ে সভা আহবান করে। সভার সিদ্ধান্তের আলোকে রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, সমাজসেবা এবং স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ও গৌরবোজ্জল ভূমিকা পালনের স্বীকৃতিস্বরুপ ৫ জন বিশিষ্ট নারী ব্যক্তিত্বকে ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক-২০২২’ প্রদানের লক্ষ্যে চুড়ান্তভাবে মনোনয়নের জন্য সর্বসম্মতিক্রমে সুপারিশ করে।

জাতীয় পুরষ্কার সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সুপারিশে যারা রয়েছেন-
রাজনীতিতে অবদানের জন্য সিলেটের সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, অর্থনীতিতে অবদানের জন্য সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ, শিক্ষায় সিলেটের অধ্যাপক নাসরিন আহমাদ, সমাজ সেবায় কিশোরগঞ্জের মোছা: আছিয়া আলম, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে গোপালগঞ্জের বীর মুক্তিযোদ্ধা আশা লতা বৈদ্য (যুদ্ধকালীন কমান্ডার)। 

পদকপ্রাপ্তরা প্রত্যেকেই পাবেন আঠারো ক্যারেটের চল্লিশ গ্রাম স্বর্ণের নির্মিত পদক, পদকের রেপ্লিকা, চার লাখ টাকার চেক ও সম্মাননা পত্র।

সোনালীনিউজ/আইএ

Wordbridge School
Link copied!