• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ছাদ বাগানে গোলাপ চাষের সম্ভাবনা 


গাজীপুর প্রতিনিধি এপ্রিল ১০, ২০২৩, ০২:৪৭ পিএম
ছাদ বাগানে গোলাপ চাষের সম্ভাবনা 

গাজীপুর: গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকাতে বাণিজ্যিক ভাবে ফুল চাষের কথা শোনা গেলেও। এবার প্রথম বারের মতো নতুন একটি খবর যোগ করলেন গাজীপুর শহরের দক্ষিণ ছায়াবীথি এলাকার বাসিন্দা জেসন ভৌমিক। তিনি শখের বসে তার বাসার ছাদে টবের মধ্যে একটি গোলাপ গাছের চারা রোপন করেন।

এর পর এটাকে স্বযত্নে দেখাশোনা করেন। পরবর্তীতে কয়েক মাসের মধ্যে দেখেন টবে ফুলের উৎপাদন আশানুরূপ। এতে করে তিনি বুঝতে পারেন ছাদ বাগানে গোলাপের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। পরে তিনি সেই টবের গোলাপ বাড়াতে বাড়াতে পুরো ছাদ ছাদজুড়ে গড়ে তুলেছেন বাণিজ্যিক গোলাপের বাগান। 

জানাগেছে, জেসন ভৌমিকের বাসাটি ২ হাজার ২০০ বর্গফুটের। বাসার পুরো ছাদজুড়েই রয়েছে বাহারি রঙের গোলাপ। আর এখানে রয়েছে অসংখ্য দেশ–বিদেশের বিভিন্ন জাতের গোলাপ ফুল। এখানে ফুটা একটি গোলাপ যেনো আরেকটি গোলাপের চেয়ে অধিক সৌন্দর্যে ভিন্নতার স্বাদ বয়ে এনেছে।

শুধু তাই নয় ভিন্নতা আনতে-আনতে বর্তমানে তাঁর বাগানে যোগ করা হয়েছে প্রায় ২৫০ ধরনের গোলাপ ফুলের গাছ। এসব ফুলের গাছ থেকে যে পরিমাণে ফুল উৎপাদন হচ্ছে। এ থেকে নিজের পরিবার এবং আত্বীয়স্বজনদের ফুলের চাহিদা পূরণের পাশাপাশি বাজারে বিক্রি করে অর্জন করছেন আর্থিক মুনাফা। যা দিয়ে তিনি নিজেকে অর্থনৈতিক দিক থেকে একজন স্বাবলম্বী উদ্যোগক্তা হিসেবে গড়ে তুলেছেন। 

গোলাপ ফুলের চারার পরিচর্যা সম্পর্কে পূর্বে থেকে তেমন কোনো ধারণা ছিল না তার। শখের গোলাপ টবে মধ্যে করে সফলতা পাওয়ার পর। বড় পরিসরে বাগান করার চিন্তা মাথায় আসে। এর পর থেকেই বিভিন্ন নার্সারিতে যোগাযোগ করেন তিনি। টবে গোলাপের গাছ লাগানো, সার দেওয়া ও পরিচর্যা স্থানীয় কিছু ফুল প্রেমী ও বাগানীদের পাশাপাশি মূল পরামর্শ এবং দিকনির্দেশনার সহযোগিতা নেন ইন্টারনেট থেকে। এতে এখানে তিনি তথ্য প্রযুক্তির অগ্রগতিও ফুটিয়ে তুলেছেন। 

দৃষ্টিনন্দন চোখ ধাধানো ছাদ বাগানের সুন্দর্য উপভোগ করার পাশাপাশি। কি ভাবে স্বল্প পুঁজি দিয়ে গোলাপ বাগান গড়ে তুলা যায়। এমন পরামর্শ নিতে প্রতিদিন কিছু ফুল প্রেমীরা ছুটে আসছে জেসন ভৌমিকের বাগানে। এমন একজন ফুল প্রেমী উজ্জ্বল মিয়া,তিনি বলেন, গাজীপুর শহরের মধ্যে এত সুন্দর গোলাপ ফুলের ছাদ বাগান আছে। আগে কখনো তিনি কল্পনাও করেননি। তবে শিক্ষিত তরুণরা যে অনেক কিছু করে দেখাতে পারেন। তার প্রমাণ এই ফুল প্রেমী ভৌমিক।

জেসন ভৌমিক স্কুল জীবন থেকেই ফুলকে ভালবাসতেন ফুলের প্রতি দেওয়না ছিলেন। আর তাই ফুলপ্রেমী ভৌমিক কলেজ থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত চালিয়ে গেছেন ফুল বাগান গড়ে তুলার কাজ। তিনি সর্বশেষ বেসরকারি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সম্প্রতি তিনি অর্থনীতি বিষয়ে স্নাতক পাস করেছেন। এখন চলছে তার মাস্টার্সের প্রস্তুতি।

টবে এই ছাদবাগান দেশের সবচেয়ে বেশি প্রজাতির গোলাপ আছে রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। বর্তমান মানে তার বাগান ও ফুল ব্যবসা নিয়ে পরিকল্পনার বিষয়ে কথা হয় গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে। এ সময়ে জেসন ভৌমিক জানান, বাগানের পাশাপাশি গোলাপ নিয়ে গবেষণাও করেন তিনি। 

এ গবেষণার সফল অংশ হিসেবে ভিন্নজাতের গোলাপের ‘ক্রস ব্রিডিংয়ের’ মাধ্যমে এ পর্যন্ত সাতটি নতুন জাত উদ্ভাবন করেছেন তিনি। যা নিসন্দেহে বিরল ঘটনা। যার মধ্যে তিনি একটির নামকরণ করেছেন জাতির পিতা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে। ‘বঙ্গবন্ধু গোলাপ’।

জেসন ভৌমিক বলেন,মানুষ পারেনা এমন কোন কাজ নেই। শুধু দরকার ইচ্ছে শক্তি। তিনি স্কুল জীবন থেকে শুরু করেন শখের ফুল চাষ। পরে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে বাণিজ্যিক ভাবে শুরুর মাধ্যমে গোলাপের সম্ভাবনার দোয়ার উন্মোচন করেছেন। তিনি আরও বলেন,দেশের শিক্ষিত তরুণরা ইচ্ছে করলে ছাদ বাগান গড়ে তুলে স্বাবলম্বী হতে পারবে। 

সোনালীনিউজ/এমএস/এসআই

Wordbridge School
Link copied!