• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

পরকীয়ায় ফেঁসে আওয়ামী লীগ নেতার বিয়ে


শ্রীপুর (গাজীপুর) সংবাদদাতা অক্টোবর ৬, ২০২২, ০৬:৫৩ পিএম
পরকীয়ায় ফেঁসে আওয়ামী লীগ নেতার বিয়ে

শ্রীপুর: গাজীপুরের শ্রীপুরে এক বিধবা নারীর সঙ্গে অনৈতিক সর্ম্পক চলাকালীন স্থানীয়দের হাতে অবরুদ্ধ হয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতা আব্দুল জলিল মৃধা (৪২)। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের বাপ্তা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত আব্দুল জলিল মৃধা উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের বাপ্তা গ্রামের বাসিন্দা। তিনি কাওরাইদ ইউনিয়নের বাপ্তা গ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কাওরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুল হক বলেন, ওই নারীর সঙ্গে জলিলের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। তারা গোপনে বিয়ে করেছেন। অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে তাদের ইউনিয়ন পরিষদে আনা হয়। পরে দুপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে চার লাখ টাকা কাবিন দিয়ে বিয়ে পরানো হয়।

ভুক্তভোগী বিধবা নারী বলেন, ‘আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে জলিল। আমার সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরে সে শারীরিক সম্পর্ক করে আসছে।’ 

স্থানীয়রা জানান, আজ সকাল ৮ টায় জলিল গোপনে ওই নারীকে বাপ্তা গ্রামের আনিছ মিয়ার বাড়িতে নিয়ে আসেন। এ সময় গ্রামবাসীরা বিষয়টি জানতে পেরে তাদের তালাবদ্ধ করে দেয়। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য সাইদুর রহমান কোকন তাদের উদ্ধার করে কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে যান।

অভিযুক্ত আব্দুল জলিল মৃধা অনৈতিক কাজের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি গত সেপ্টেম্বর মাসে তাকে গোপনে বিয়ে করছি। তবে এখনো তাকে বাড়ি তুলে নেইনি।’

কাওরাইদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসেম বলেন, ‘আব্দুল জলিল ইউনিয়নের বাপ্তা গ্রাম আওয়ামী লীগের সভাপতি। তবে অনৈতিক কার্যকলাপের জন্য তালাবদ্ধ করে রাখার বিষয়টি আমার জানা নেই। কেউ আমাকে এ বিষয়ে অবহিত করেনি।’

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, ‘এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ আমাকে অবহিত করেনি। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সোনালীনিউজ/এম

Wordbridge School