• ঢাকা
  • শনিবার, ০২ মার্চ, ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

সিদ্ধান্ত বদল, বায়তুল মোকাররমেই সমাবেশ করবে আ. লীগের ৩ সংগঠন


নিজস্ব প্রতিবেদক জুলাই ২৭, ২০২৩, ০২:০৭ পিএম
সিদ্ধান্ত বদল, বায়তুল মোকাররমেই সমাবেশ করবে আ. লীগের ৩ সংগঠন

ঢাকা: বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটেই শুক্রবারের শান্তি সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে আওয়ামী লীগের তিন সহযোগী সংগঠন।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হাসান নিখিল বৃহস্পতিবার দুপুরে বলেন, “আমরা শুক্রবার বায়তুল মোকাররম মসজিদের দক্ষিণ গেইটে শান্তি সমাবেশ করার জন্য আবারও অনুমতি চেয়েছি।

যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগ এই তিন সংগঠন এখানেই সমাবেশ করব। সেই অনুযায়ী আমরা প্রস্তুতিও নিচ্ছি। বিকাল ৩টায় সমাবেশ হবে।"

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে রাজনৈতিক অঙ্গনে উত্তাপ বাড়ার মধ্যে বৃহস্পতিবার ঢাকায় ‘মহাসমাবেশ’ করার ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি, যারা আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থকে হটাতে এক দফার আন্দোলনে রয়েছে।

এরপর যুবলীগ তাদের সোমবারের ‘তারুণ্যের জয়যাত্রা’ সমাবেশ পিছিয়ে বৃহস্পতিবার নিয়ে যায়। আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনটি পক্ষ থেকে বলা হয়, বিএনপির ‘অরাজকতা’ সৃষ্টির চেষ্টা ঠেকাতে তারা মাঠে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

পরে যুবলীগের সঙ্গে ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগও কর্মসূচিতে যুক্ত হয়ে জানায়, বৃহস্পতিবার বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ ফটকে তারা দুপুর থেকে ‘শান্তি সমাবেশ’ করবে।

অন্যদিকে বিএনপি নয়া পল্টনে তাদের দলীয় কার্যালয়ে সামনে সমাবেশের প্রস্তুতি নিয়ে এগোতে থাকে। সেখানে না হলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে বিকল্প স্থান হিসেবে দেখায় তারা।

দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি সমাবেশের ঘোষণায় পুলিশ কাউকেই অনুমতি দিচ্ছিল না। বুধবার দুপুরে ডিএমপি কমিশনার বলেন, বৃহস্পতিবার যেহেতু কর্মদিবস, সে কারণে নয়া পল্টন কিংবা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুমতি দিতে চান না তারা।

ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপকমিশনার মো. ফারুক হোসেন জানান, আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোকেও অনুমতি দেওয়া হয়নি।

বিএনপিকে গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ করার পরামর্শ দেয় পুলিশ, যদিও তাতে দলটির মত ছিল না। তেমনি যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগও বিকল্প স্থান দেখতে থাকে।

জনভোগান্তি সৃষ্টি করে একের পর এক রাজনৈতিক কর্মসূচি চলতে থাকলে ভবিষ্যতে পুলিশকে এ ধরনের কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা ভাববেন বলে হুঁশিয়ার করেন ডিএমপি কমিশনার।

লিখিত অনুমতি চেয়েও পুলিশের সায় না পাওয়ায় বিকালে বৈঠকে বসেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতারা। রাতে সংবাদ সম্মেলনে এসে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, তারা সমাবেশ একদিন পিছিয়েছেন। শুক্রবার বেলা ২টায় নয়া পল্টনে তাদের পূর্বঘোষিত মহাসমাবেশ হবে।

এদিকে বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ ফটকে অনুমতি না পেয়ে বৃহস্পতিবার সমাবেশের জন্য ঢাকা মহানগর নাট্য মঞ্চ কিংবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাঠ বিকল্প স্থান হিসেবে ভাবনায় ছিল আওয়ামী লীগের যুব সংগঠনগুলোর নেতাদের।

তবে বিএনপি সমাবেশের দিন পিছিয়ে দেওয়ার পর যোগাযোগ করা হলে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হাসান খান নিখিল বলেন, তাদের কর্মসূচিও একদিন পিছিয়ে শুক্রবার বিকাল ৩টায় নেওয়া হয়েছে। শেরেবাংলা নগরে পুরাতন বাণিজ্য মেলা মাঠে তাদের শান্তি সমাবেশ হবে।

নিখিল বলেছিলেন, “মূলত রাজধানীতে যাতে কোনো ধরনের অরাজকতা না হয়, সেজন্যই আমরা তারিখ পরিবর্তন করেছি।”

সোনালীনিউজ/এআর

Wordbridge School
Link copied!