• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

আপনারা অপেক্ষা করুন ভালো কিছু দেখতে পাবেন : জাহাঙ্গীর 


গাজীপুর প্রতিনিধি জুলাই ৪, ২০২৩, ১২:০৫ পিএম
আপনারা অপেক্ষা করুন ভালো কিছু দেখতে পাবেন : জাহাঙ্গীর 

গাজীপুর: গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন এর সাবেক মেয়র মো: জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সব কথাই হয়েছে। আমার মা নবনির্বাচিত মেয়র জায়েদা খাতুনও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জায়েদা খাতুন এর সঙ্গে কি কথা হয়েছে এটা নিয়ে আমার বলা এই মহূর্তে ঠিক হবে কি? তাই আমি কিছু বলতেও চাচ্ছিও না। তবে আপনারা অপেক্ষা করুন সামনে ভালো কিছু দেখতে পাবেন।

সোমবার (৩ জুলাই) সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে শপথ নেন নবনির্বাচিত পাঁচ সিটি মেয়র। মেয়রদের শপথবাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জায়েদা খাতুন এর শপথবাক্য অনুষ্ঠানের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পাশে ছিলেন তার ছেলে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। অনুষ্ঠান শেষে গণমাধ্যমে তিনি এসব কথা বলেন। 

সাবেক এই মেয়র আরও বলেন, ছাত্রজীবন থেকেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আদর্শের রাজনীতি করে আসছি। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশকে ধারণ করেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। তিনি বলেন, আমি অনেক ষড়যন্ত্রের শীকার হয়েছি।  

তবে সকল প্রকার ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে গাজীপুরে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেছি। মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার আস্থা ও ভরসার স্থান। গাজীপুরের জনগণ আমার সঙ্গে আছে, আওয়ামী লীগের সঙ্গে আছে। আমি আওয়ামী লীগের জন্য এবং এই মহানগরীর উন্নয়নের জন্য মায়ের পাশে থেকে কাজ করে যাব।

এ দিকে আওয়ামী লীগ ও জাহাঙ্গীর আলমের ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, শপথবাক্য অনুষ্ঠানের ফাঁকে ছেলে জাহাঙ্গীর আলমের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন মেয়র জায়েদা খাতুন। তিনি ছেলের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে সুপারিশ করেন। জবাবে প্রধানমন্ত্রী ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। এছাড়াও ওই সূত্র দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী জাহাঙ্গীর আলমকে ক্ষমা করে দিয়েছেন এবং দলীয় সকল কর্মকাণ্ডে অংশ নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত,গত ২৫ মে অনুষ্ঠিত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জায়েদা খাতুন ১৬ হাজার ১৯৭ ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খানকে পরাজিত করেন। মোট ৪৮০টি কেন্দ্রের মধ্যে টেবিল ঘড়ি প্রতীকের প্রার্থী জায়েদা খাতুন পান ২ লাখ ৩৮ হাজার ৯৩৪ ভোট। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আজমত উল্লা খান পান ২ লাখ ২২ হাজার ৭৩৭ ভোট।

সোনালীনিউজ/এমএস/এসআই

Wordbridge School
Link copied!