• ঢাকা
  • সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯

বিদেশি অস্ত্র কোথা থেকে এলো তা ক্ষতিয়ে দেখা হবে: সিটিটিসি


নিউজ ডেস্ক জানুয়ারি ৯, ২০২৩, ০৭:৩৫ পিএম
বিদেশি অস্ত্র কোথা থেকে এলো তা ক্ষতিয়ে দেখা হবে: সিটিটিসি

ঢাকা:  নব্য জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়ার কাছে টাকার বিনিময়ে দেশি ও এবং বিদেশি অস্ত্র সরবরাহ করতেন কবির আহম্মেদ। তিনি এগুলো কোথায় পেতেন তা ক্ষতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট। 

সোমবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানিয়েছেন সিটিটিসির প্রধান মো. আসাদুজ্জামান। সংস্থাটির হাতে গ্রেপ্তার অন্য দুজন হলেন শারক্বীয়া তৈরির 'মাস্টারমাইন্ড' পলাতক শামীম মাহফুজের অন্যতম সহযোগী মো. ইয়াসিন ও আবদুর রহমান।

তিনি জানান, গতকাল রোববার বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি থেকে কবিরকে এবং কদমতলী থেকে ইয়াসিন ও আবদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। কবিরের কাছ থেকে  তিনটি দেশীয় পিস্তল, ৬ টি একনলা বন্দুক, ১১ রাউন্ড গুলি, ১৪০ রাউন্ড সিসার তৈরি গুলি এবং আইইডি তৈরির কাঁচামাল ও সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি ধিরে ধিরে সংগঠনের সক্রিয় সদস্য হিসেবে যুক্ত হয়েছেন।

সিটিটিসি প্রধান জানান, গত ২১ ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রামের দুর্গম এলাকা থেকে শারক্বীয়ার দুই সদস্য সাইফুল ইসলাম তুহিন ও নাঈম হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। তাদের দেওয়া তথ্য ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সংগঠনের অস্ত্র সরবরাহকারী কবির আহম্মেদের নাম পাওয়া যায়। পরে তাকে শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা হয়। তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী এলাকার দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাটির নিচে লুকায়িত অবস্থায় দুটি প্লাস্টিকের ড্রাম থেকে অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।

কবিরকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে সিটিটিসি প্রধান আসাদুজ্জামান বলেন, তিনি জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়াকে অস্ত্র সরবরাহ করেছিল। উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের কিছু অংশ বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর কাছে সরবরাহ করার পরিকল্পনা ছিল। 

তার বিরুদ্ধে বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় অস্ত্র মামলা রয়েছে। অস্ত্র কেনার জন্য কবীরের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন শামীম মাহফুজ। ধীরে ধীরে কবীর নিজেও সংগঠনের প্রতি দুর্বল হয়ে পড়েন। এখন তিনি সংগঠনের সদস্য হিসেবে কাজ করেন। তার কাছ থেকে তথ্য পেয়ে শামীম মাহফুজের সহযোগী ইয়াসিন ও আবদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সোনালীনিউজ/এআর/এলআই 

Wordbridge School