• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ জুন, ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১

গুগলের দেওয়া তথ্যে শিশু যৌন নিপীড়নকারী গ্রেপ্তার


নিজস্ব প্রতিবেদক জুন ১, ২০২৩, ০৬:৩৮ পিএম
গুগলের দেওয়া তথ্যে শিশু যৌন নিপীড়নকারী গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ ও দিনাজপুরের ১০ বছরের কম বয়সি একাধিক শিশুকে যৌন নিপীড়ন করেন এক তরুণ। সেই দৃশ্য তিনি গোপনে ধারণ করে নিজের মোবাইলে সংরক্ষণ করেন। এই তথ্য গুগল পৌঁছে দেয় যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল সেন্টার ফর মিসিং অ্যান্ড এক্সপ্লয়টেড চিলড্রেনের (এনসিএমইসি) কাছে।  এনসিএমইসি আবার সেই তথ্য দেয় বাংলাদেশ পুলিশের সদরদপ্তরে। সদরদপ্তরের নির্দেশে যৌন নিপীড়নকারী মো. ইনজামুল ইসলামকে (২৬) গ্রেপ্তার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

এনসিএমইসি যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠান। তারা শিশু যৌন নির্যাতন, শিশু পর্ণোগ্রাফি বন্ধে শিশুদের অধিকার নিয়ে কাজ করে।

গতকাল (৩১ মে) গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর থানার ভবানীপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে সিআইডির সাইবার ইন্টেলিজেন্স এন্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট (সিপিসি)।

বৃহস্পতিবার (১ জুন) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজাদ  রহমান।

তিনি জানান, গুগলের সহায়তায় ন্যাশনাল সেন্টার ফর মিসিং অ্যান্ড এক্সপ্লয়টেড চিলড্রেনের (এনসিএমইসি) দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নিপীড়নকারী তরুণকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে আজাদ রহমান জানান, যৌন নিপীড়নের শিকার শিশুগুলো গ্রেপ্তার তরুণের আত্মীয়। ২০১৯ সালে এক নিকট আত্মীয়ের সঙ্গে প্রথম শারীরিক সম্পর্ক করে। বিষয়টি ওই আত্মীয়ের মেয়ে দেখে ফেলায় ১০ বছর বয়সি ওই মেয়ে শিশুটিকেও প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। আর এই দৃশ্য ধারণ করে রাখে। পাশাপাশি ওই শিশুটির বান্ধবীদের একই কৌশলে যৌন নিপীড়ন করে। আর প্রতিটি ঘটনার দৃশ্যই নিজের মোবাইলে ধারণ করে রাখে। সিআইডির হাতে গ্রেপ্তারের পরে তার মোবাইল থেকে বেশ কয়েকজন আত্মীয়সহ বিভিন্ন জনের আপত্তিকর ছবি, ভিডিও এবং চাইল্ড পর্ণোগ্রাফির বিপুল পরিমান কন্টেন্ট পাওয়া যায়।

সিআইডির জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার শিশু যৌন নিপীড়নের ঘটনার দায় স্বীকার করা ইনজামুল জানায়, গ্রামের শিশু-কিশোরী এবং প্রাপ্তবযয়স্ক নারীদের সঙ্গে প্রথমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলত। এরপর তাদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে ভিডিও করে মোবাইলের গুগল ড্রাইভে সংরক্ষণ করত।

জানা গেছে, ন্যাশনাল সেন্টার ফর মিসিং অ্যান্ড এক্সপ্লয়টেড চিলড্রেন (এনসিএমইসি) যুক্তরাষ্ট্রে নিবন্ধন করা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান যেমন ফেসবুক, গুগল, মাইক্রোসফট তাদের নেটওয়ার্কে শিশুদের যৌনকাজে ব্যবহার, যৌন নিপীড়ন সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য এনসিএমইসিকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে জানায়। ২০২১ সাল থেকে এনসিএমইসির সঙ্গে যুক্ত হয় সিআইডি। সেখান থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে শিশু যৌন নিপীড়নকারী চিহ্নিত করা ও আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে আসছে। 

গ্রেপ্তারকৃত ইনজামুলে  বিরুদ্ধে পল্টন থানায় পর্ণোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোনালীনিউজ/এলআই/আইএ

Wordbridge School
Link copied!