• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮
abc constructions

বিকৃত যৌনাচারে অভ্যস্ত রাজ, মিলেছে বেল্ট দড়ি ডাণ্ডা  


বিনোদন ডেস্ক আগস্ট ৫, ২০২১, ০৩:৩০ পিএম
বিকৃত যৌনাচারে অভ্যস্ত রাজ, মিলেছে বেল্ট দড়ি ডাণ্ডা  

ঢাকা: র‌্যাবের হাতে আটক হওয়া প্রযোজক ও অভিনেতা নজরুল ইসলাম রাজ পর্নো ভিডিও তৈরি করতেন বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। তার প্রোডাকশন হাউস থেকে বিকৃত যৌনাচারে ব্যবহার্য বিভিন্ন সরঞ্জাম পাওয়া গেছে।
 
বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে রাজধানীর বনানী থানার ৭ নম্বর সড়কের ৪১ নম্বর বাসায় অভিযান শুরু করে র‌্যাব। রাত সাড়ে ১০টায় রাজকে একটি গাড়িতে তুলে র‌্যাব সদর দফতরে নেওয়া হয়। তিনি রাজ মাল্টিমিডিয়ার স্বত্বাধিকারী।  

তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশি ব্র্যান্ডের দামি মদ, তিন প্যাকেট ইয়াবা, সিসা, সিসা সেবনের সামগ্রী, বেল্ট, দড়ি, ডাণ্ডা, মাদক সেবনের জন্য ব্যবহৃত বিশেষ কম্বলসহ বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি বাসাকে টর্চার সেল বানিয়েছিলেন। যার জন্য বেল্ট, দড়ি ও ডাণ্ডা মজুদ রেখেছিলেন।  

বিকৃত যৌনাচারে অভ্যস্ত ছিলেন নজরুল রাজ, অভিযানে অংশ নেওয়া একাধিক কর্মকর্তা এমন কথা বলেছেন। কারণ তার বাসা থেকে ততোধিক নারী-পুরুষ একসঙ্গে যৌনাচারে লিপ্ত হওয়ার জন্য ব্যবহৃত এবং বিশেষ কৌশলে তৈরি করা খাট পাওয়া গেছে।  

এছাড়া রাজ মাল্টিমিডিয়া প্রোডাকশন হাউসের একটি কক্ষে দলবদ্ধ যৌনাচারে ব্যবহার্য বিভিন্ন সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি বিশেষ উদ্দেশ্যে পর্নো ভিডিও তৈরি অথবা ব্ল্যাকমেইলিংয়ের কাজে এসব ব্যবহার করতেন।

সম্প্রতি গ্রেফতার হন মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মৌ। বুধবার রাতে নায়িকা পরীমনিকেও আটক করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে নজরুল রাজের নাম আসে। এ ছাড়া বহুল আলোচিত মিশু হাসানও নজরুল রাজ সম্পর্কে র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন।  

নজরুল ইসলাম রাজই পরীমনি ও পিয়াসাকে শোবিজে আনেন। তাদের দিয়ে তদবির বাণিজ্যসহ বিভিন্ন ফায়দা হাসিল করতেন তিনি।  

র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী মিশু হাসানকে গ্রেফতারের পর তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। এর ভিত্তিতেই রাজকে আটক করা হয়েছে।

সোনালীনিউজ/আইএ  

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Dutch Bangla Bank Agent Banking
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System