• ঢাকা
  • বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

ই-নামজারি, রেজিষ্ট্রেশন ফিসহ ভূমির সর্বশেষ যে তথ্যগুলো সবার জানা দরকার


নিজস্ব প্রতিবেদক মে ২১, ২০২৩, ০১:৫৩ পিএম
ই-নামজারি, রেজিষ্ট্রেশন ফিসহ ভূমির সর্বশেষ যে তথ্যগুলো সবার জানা দরকার

ঢাকা : ‘স্মার্ট ভূমি সেবায় ভূমি মন্ত্রণালয়’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আগামী সোমবার থেকে রোববার পর্যন্ত সারা দেশে ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২৩’ উদযাপন করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্বোধন করা স্মার্ট ভূমি সেবার মূল অংশীজন হিসেবে দেশের জনগণকে সম্পৃক্ত করা, স্মার্ট ভূমিসেবা বিষয়ে সবাইকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে অবগত করা এবং ভূমি সেবা পাওয়ার ক্ষেত্রে নিজ নাগরিক অধিকারের ব্যাপারে সবার মাঝে সচেতনতা বাড়ানো এবারের ভূমি সেবা সপ্তাহের মূল লক্ষ্য। এছাড়া ভূমিসেবা সপ্তাহকালীন বিশেষ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বেশকিছু ভূমিসেবা দেওয়া হবে।

এ বছর ভূমিসেবা সপ্তাহটি প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন করা স্মার্ট ভূমিসেবা উদ্যোগ এবং জাতীয় ভূমি সম্মেলন ২০২৩-এর ধারাবাহিকতায় উদযাপন করা হবে। এজন্য এবারের ভূমিসেবা সপ্তাহটি কেন্দ্রীয়ভাবে উদ্বোধন করা হচ্ছে না। স্মার্ট ভূমি ব্যবস্থাপনা স্থাপনে প্রথম ধাপে প্রধানমন্ত্রী ‘রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তঃসংযোগ’, ‘স্মার্ট ভূমি নকশা’, ‘স্মার্ট ভূমি রেকর্ড’ এবং ‘স্মার্ট ভূমি-পিডিয়া’ উদ্বোধন করেছিলেন গত ২৯ মার্চ।

আগামী সোমবার সারা দেশে সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় কমিশনার এবং জেলা প্রশাসকরা নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে স্থানীয়ভাবে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করবেন।

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীর নির্দেশে এ মাসের শুরুতে ভূমি সচিব খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে ভূমিসেবা সপ্তাহ উদযাপন সংক্রান্ত এক প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে যথাযথ অনুমোদন পাওয়ার পর সভার সিদ্ধান্তের আলোকে সারা দেশে ভূমিসেবা সপ্তাহ পালনের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, প্রবাসী বাংলাদেশিরা এখন চার ধরনের ভূমিসেবা বিদেশে থেকেই গ্রহণ করছেন। পর্যায়ক্রমে প্রবাসীদের আরও কিছু ভূমিসেবার আওতায় নিয়ে আসা হবে। এজন্য প্রথমবারের মতো স্বল্পপরিসরে প্রবাসী বাংলাদেশিদেরও স্মার্ট ভূমিসেবা বিষয়ে অবহিত করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে স্মার্ট বাংলাদেশ ভিশন ২০৪১ প্রতিষ্ঠা এবং স্মার্ট বাংলাদেশ রোডম্যাপে ৪টি পিলার যথাক্রমে: স্মার্ট সিটিজেন, স্মার্ট সোসাইটি, স্মার্ট ইকোনমি এবং স্মার্ট গভর্নেন্স অন্তর্ভুক্ত করে উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার।

সরকারের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন করা চারটি স্মার্ট ভূমিসেবা (‘রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তঃসংযোগ’, ‘স্মার্ট ভূমি নকশা’, ‘স্মার্ট ভূমি রেকর্ড’ এবং ‘স্মার্ট ভূমি-পিডিয়া’) ছাড়াও বেশকিছু ভূমিসেবা ব্যবস্থা ‘স্মার্ট ডিজিটালাইজ’ করা হচ্ছে।

এছাড়া ইতোমধ্যে ডিজিটালাইজ করা ভূমিসেবা সমূহও স্মার্ট করে তথা অধিকতর ব্যবহারকারী সহায়ক ও সহজ করে গড়ে তোলার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে উল্লেখ করার যেতে পারে ই-নামজারির দ্বিতীয় ভার্সন স্থাপনের কাজ এবং বাংলাদেশ ডিজিটাল সার্ভেতে ড্রোন প্রযুক্তির ব্যবহার।

সম্পদের দক্ষ ব্যবহার করে তথ্য চালিত উন্নত নাগরিক সেবা প্রদান এবং নাগরিক সেবা গ্রহণের অভিজ্ঞতা অধিকতর সহজ করার উদ্দেশ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, ব্লকচেইন, ক্লাউড কম্পিউটিং, ড্রোন এবং ইউএভি, রিমোট সেন্সিং, মেশিন ভিশন, বায়োমেট্রিক্স ইত্যাদি সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে স্মার্ট ভূমি ব্যবস্থাপনা সিস্টেম ডিজাইনে। এর ইউজার ইন্টারফেস হচ্ছে ‘স্মার্ট ভূমিসেবা প্ল্যাটফর্ম’ (https://land.gov.bd) ওয়েব পোর্টাল এবং সংশ্লিষ্ট মোবাইল অ্যাপ।

সারা দেশে স্মার্ট ভূমি ব্যবস্থা চালু হলে নাগরিকদেরকে খুব প্রয়োজন ছাড়া ভূমি অফিসে যেতে হবে না, একবার কোথাও ডিজিটাল জরিপ সম্পন্ন হলে, সেখানে ভবিষ্যতে আর জরিপ করার প্রয়োজন পড়বে না। ভূমি নিয়ে মামলা-মোকাদ্দমা ও সীমানা বিরোধ কমে যাবে বহুলাংশে।

 ‘স্মার্ট ভূমি সেবায় ভূমি মন্ত্রণালয়’ প্রতিপাদ্যে দেশের ৮টি বিভাগ, ৬৪টি জেলা এবং ৫০৭টি উপজেলা, রাজস্ব সার্কেল, ইউনিয়ন ও পৌর ভূমি অফিসে ২২ মে থেকে ২৮ মে ২০২৩ তারিখ পর্যন্ত ভূমি সেবা সপ্তাহ ২০২৩-এর কার্যক্রম চলবে।

ই-নামজারি, অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর, ডাকযোগে সার্টিফাইড খতিয়ান ও ম্যাপ এবং ১৬১২২ নম্বরে কল সেন্টারের মাধ্যমে ভূমিসেবা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন করা ‘রেজিস্ট্রেশন-মিউটেশন আন্তঃসংযোগ’, ‘স্মার্ট ভূমি নকশা’, ‘স্মার্ট ভূমি রেকর্ড’ এবং ‘স্মার্ট ভূমি-পিডিয়া’ সহ স্মার্ট ভূমিসেবা স্থাপনে ভূমি মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনার ব্যাপারে সম্যক ধারণা প্রদান করা হবে ভূমিসেবা সপ্তাহে।

ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে ভূমি সেবা সপ্তাহ ২০২৩ উদযাপনে বিভাগীয়, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন কেন্দ্রিক কিছু বিষয়ে গুরুত্বারোপ করার জন্য বিশেষভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ইউনিয়ন পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবা প্রদানে বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে, সেগুলো হচ্ছে: ই-নামজারি এবং অনলাইন ভূমি উন্নয়ন কর বিশেষত ক্যাশলেস ভূমি উন্নয়ন কর প্রদান বিষয়ে অবহিতকরণ ও প্রচার। ভূমি সেবা গ্রহীতাদের সেবা সম্পর্কিত বিভিন্ন জিজ্ঞাসার জবাব সরাসরি উত্তর প্রদানের জন্য সেবাবুথে কর্মকর্তা নিয়োজিত থাকবেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Wordbridge School
Link copied!