• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

পাঁচ মাসের বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, লাইন কাটতে গেলে দা দিয়ে দৌড়ানি


নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি জুন ২৪, ২০২৪, ০৮:৫৭ পিএম
পাঁচ মাসের বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, লাইন কাটতে গেলে দা দিয়ে দৌড়ানি

নান্দাইল: ময়মনসিংহের নান্দাইলে পাঁচ মাসের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আদায় করতে গিয়ে গ্রাহকের ধারালো দা দিয়ে বিদ্যুৎ অফিসের দুই কর্মচারিকে দৌড়ানির অভিযোগ উঠেছে। 

সোমবার (২৪জুন) দুপুরে নান্দাইল পৌর সভার কাটলিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গ্রাহক মো.বাককেম ফকির ও তার ছেলে রিগ্যান আহমেদ ফাহাদ এ ঘটনা ঘটিয়েছে। 

খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নান্দাইল জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) বিপ্লব কুমার সরকার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়জুর রহমান, নান্দাইল মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম সহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মচারীরা গিয়ে বিদ্যুৎ লাইন কেটে দেন। 

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নান্দাইল জোনাল অফিস সূত্রে জানা গেছে- পৌরসভার বাসিন্দা খুরশেদ আলম ফকিরের ছেলে বাককেম ফকির পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহক। গত পাঁচ মাস বিদ্যুৎ ব্যবহার করে বিদ্যুৎ বিল ৭ হাজার ১শত ৯১ টাকা বকেয়া জমে। 

সোমবার দুপুরে বিদ্যুৎ অফিসের দুই কর্মচারি বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আনতে গেলে দুই কর্মচারিকে বিল দিবে না বলে জানান। পরে তারা বিদ্যুৎ লাইন কেটে দিতে চাইলে ধারালো দা দিয়ে দুই কর্মচারিকে দৌড়ানি দেয়। 

খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নান্দাইল জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) বিপ্লব কুমার সরকার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়জুর রহমান ঘটনা স্থলে গিয়ে লাইন কেটে দেন। 

কিশোরগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন নান্দাইল পল্লী বিদ্যুতের ডিপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) বিপ্লব চন্দ্র সরকার জানান, গ্রাহক বাককেম ফকিরের বিরুদ্ধে এর আগেও বকেয়া বিদ্যুৎ বিল থাকায় মামলা হয়েছিল। দুই কর্মচারিকে বকেয়া বিলের জন্য পাঠালে সে টাকাও দিবে না লাইনও কাটতে দিবে না বলে দাঁ দিয়ে দৌঁড়ানি দিয়েছে। আমার অফিসে এসে ফাহাদ অসৌজন্যমূলক আচরণও করেছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এমএস

Wordbridge School
Link copied!