• ঢাকা
  • সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১, ৬ বৈশাখ ১৪২৮
abc constructions

আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ


নিজস্ব প্রতিবেদক ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১, ০৯:১১ পিএম
আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ

বগুড়া: বগুড়া পৌরসভার স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত আবদুল মান্নান আকন্দের বিরুদ্ধে দুদকের মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের ৩১ কোটি টাকা দুর্নীতির মামলায় চার্জ শুনানিতে অনুপস্থিত থাকায় এবং সময় প্রার্থনা করায় বগুড়ার স্পেশাল জজ এমরান হোসেন চৌধুরী এ আদেশ দেন।

মামলার অপর আট আসামির উচ্চ আদালতের জামিন বহাল রয়েছে। পরে সব আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন হয়েছে।

দুদকের স্পেশাল পিপি আবুল কালাম আজাদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত আব্দুল মান্নান আকন্দ জানান, তিনি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। মামলায় যে পরিমাণ টাকা নিয়ে অভিযুক্ত করা হয়েছে সে টাকা তিনি পরিশোধ করেছেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- ব্যাংকের বগুড়া শাখার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলাম, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ শাখার ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট আতিকুল কবির, বগুড়া শাখার সিনিয়র নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান এবং জালিয়াত চক্রের সদস্য মাকসুদুল আলম খোকন, আকতার হোসেন, জহুরুল হক, এনামুল হক ও ফেরদৌস আলম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৮ সালের ২৩ অক্টোবর থেকে ২০১১ সালের ৩ নভেম্বর পর্যন্ত একটি সংঘবদ্ধ জালিয়াত চক্র ওই ব্যাংকের কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, আতিকুল কবির ও মাহবুবুর রহমানের যোগসাজশে গ্রাহকদের হিসাব থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা আত্মসাৎ করেন। এ সংক্রান্ত মামলা তদন্তের জন্য দুদকের প্রধান কার্যালয়ে পাঠানো হয়। দুদকের উপপরিচালক আখতার হামিদ ভুঁইয়া গত ২০১২ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি তদন্ত শুরু করেন। পরবর্তীতে তদন্ত করেন, উপপরিচালক সৈয়দ তাহসিনুল হক। তিনি গত ২০১৪ সালের ৪ জুন আসামিদের মামলার দায় থেকে অব্যাহতি দিতে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। পরবর্তী সময়ে দুদক বগুড়া সমন্বিত কার্যালয়ের তৎকালীন উপপরিচালক আনোয়ারুল হককে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তিনি তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের আগস্টে তিন ব্যাংক কর্মকর্তা এবং জালিয়াতি চক্রের ছয় সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

বগুড়ায় দুদকের স্পেশাল পিপি আবুল কালাম আজাদ জানান, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ৩১ কোটি আত্মসাতের মামলার নয় আসামি উচ্চ আদালত থেকে জামিন লাভ করেন। বৃহস্পতিবার চার্জ গঠন শুনানির দিন ধার্য ছিল। সব আসামি হাজির হলেও বগুড়া পৌরসভায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত আবদুল মান্নান আকন্দ অনুপস্থিত ছিলেন। তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে সময় প্রার্থনা করেন। স্পেশাল জজ এমরান হোসেন চৌধুরী সময় আবেদন নামঞ্জুর করে আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন। এছাড়া অনুপস্থিত আসামি আবদুল মান্নান আকন্দের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। এ মামলায় মান্নান আকন্দের বিরুদ্ধে ২৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে।

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School