• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

না ফেরার দেশে রেসলিং তারকা ব্রে ওয়াট 


ক্রীড়া ডেস্ক আগস্ট ২৫, ২০২৩, ০৫:২৮ পিএম
না ফেরার দেশে রেসলিং তারকা ব্রে ওয়াট 

ঢাকা: ৩৬ বছর বয়সেই না ফেরার দেশে ‘ওয়ার্ল্ড রেসলিং এন্টারটেইনমেন্ট (ডব্লিউডব্লিউই)’-এর জনপ্রিয় রেসলার ব্রে ওয়াট। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় ভোরে সামাজিক মাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) এক বার্তায় ব্রে ওয়াটের মৃত্যুর সংবাদটি জানান ডব্লিউডব্লিউই’র চিফ কন্টেন্ট অফিসার ও হেড অব ক্রিয়েটিভ পল মাইকেল লেভেস্ক। যিনি ‘ট্রিপল এইচ’ নামেই পরিচিত। 

গত কয়েক বছর ধরেই শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন ব্রে ওয়াট। শারীরিক অসুস্থতার জন্য গত কয়েক মাস ধরে তিনি রেসলিং থেকেও দূরে ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে এই রেসলারের। যদিও বিষয়টি নিশ্চিত করা যায়নি। 

ব্রে ওয়াটের আসল নাম উইন্ডহাম রোটুন্ডা। তার বংশে তৃতীয় প্রজন্মের রেসলার ছিলেন তিনি। তার বাবা মাইক রোটুন্ডা ও  নানা রবার্ট উইন্ডহাম (ব্ল্যাকজ্যাক মুলিগান) দুজনই ডব্লিউডব্লিউইর সাবেক রেসলার ছিলেন। 

ট্রিপল এইচ এক্সের বার্তায় জানান, ‘ডব্লিউডব্লিউই’র হল ফেম মাইক রোটুন্ডা ফোন করে জানান যে, উইন্ডহাম রোটুন্ডা মারা গিয়েছেন। রেসলিং পরিবারের আজীবন সদস্য ছিলেন উইন্ডহ্যাম রোটুন্ডা। তাকে ব্রে ওয়াট নামেও অনেকে চিনত। কিন্তু আজ আচমকাই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছে। ওর পরিবারের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা রইল। সেইসঙ্গে আপনাদের কাছেও অনুরোধ করছি, এই কঠিন সময় ওর পরিবারের গোপনীয়তা বজায় রাখা হোক।’

রেসলিং দুনিয়ার আর এক চেনা ব্যক্তিত্ব ডোয়াইন জনসন। যিনি ‘দ্য রক’ নামেই খ্যাত। তিনিও এক্সে লিখেছেন, ‘ব্রে ওয়াটের মৃত্যুতে একেবারে ভেঙে পড়েছি। রোটুন্ডা পরিবারের সবার প্রতি সমবেদনা ও ভালবাসা রইল।’

শেষবার তাকে রিংয়ে দেখা গিয়েছিল চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে। ২০০৯ সাল থেকে ডব্লিউডব্লিউইর সঙ্গে ছিলেন ব্রে ওয়াট। নিজের চরিত্রকে আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপন করার জন্য বেশ কিছু উদ্ভাবনী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলেন ওয়াট, ‘দ্য ফিন্ড’ চরিত্র ছিল যার প্রমাণ। ‘দ্য ফিন্ড’ রূপে তিনি ফিন ব্যালর, সেথ রলিন্স, গোল্ডবার্গ, জন সিনা, র‍্যান্ডি অরটনের সঙ্গে লড়েছেন রিংয়ে।

এআর 

Wordbridge School
Link copied!