• ঢাকা
  • শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১

কোন দল বিশ্বকাপ জিতবে, জানালেন জ্যোতিষী


ক্রীড়া ডেস্ক নভেম্বর ১৯, ২০২৩, ১০:৩২ এএম
কোন দল বিশ্বকাপ জিতবে, জানালেন জ্যোতিষী

ঢাকা: ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১৩তম আসরের ফাইনালে আজ রবিবার মুখোমুখি হচ্ছে ভারত-অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশ সময় দুপুর আড়াইটায় আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে।

ভারত-অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপ ফাইনালে কে জিতবে তা নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন ভারতের কাশীর জ্যোতিষী সঞ্জয় উপাধ্যায়।

ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের ভাগ্য নির্ধারণ করে ওই জ্যোতিষী জানিয়েছেন, ভারতের জেতার সুযোগ বেশি। তার কারণ, ভারতীয় ক্রিকেটারদের গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থান অনেক শক্তিশালী। ভারতকে সব থেকে বেশি সুবিধা করে দিচ্ছেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তার গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থান অনেকটা ২০১১ সালের বিশ্বকাপে মহেন্দ্র সিংহ ধোনির মতো। নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ট্রফি তোলার সুযোগ তার অনেক বেশি।

শুভমান গিল, বিরাট কোহলি, শ্রেয়াস আয়ার, লোকেশ রাহুল, মহম্মদ শামি ও যশপ্রীত বুমরার শুক্র, ইউরেনাস ও নেপচুনের অবস্থান খুব ভালো। শুধু ভারতীয় দলের বেশির ভাগ ক্রিকেটারদের মঙ্গলের অবস্থানে একটু সমস্যা আছে। ফলে ক্রিকেটারদের ফিটনেসের দিকে নজর রাখতে হবে। অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস রাখলে হবে না।

অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক প্যাট কামিন্সেরও গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থান শক্তিশালী। কিন্তু তা রোহিতের থেকে কম। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের মধ্যে ট্রাভিস হেড, মিচেল মার্শ, অ্যাডাম জ়াম্পা, মিচেল স্টার্ক ও মার্নাশ লাবুশেন ভারতকে সমস্যায় ফেলতে পারেন। ম্যাচে কোনো কোনো পরিস্থিতিতে ভারত চাপে পড়তে পারে। কিন্তু সব পরিস্থিতি থেকে তাদের টেনে তুলবেন রোহিত। ভারত অধিনায়কের ভাগ্যই দলকে জেতাবে বলে মনে করছেন জ্যোতিষী।

জ্যোতিষী সঞ্জয় উপাধ্যায় জানিয়েছেন, ভারত এখন পর্যন্ত ২ বার বিশ্বকাপ জিতেছে। ১৯৮৩ সালে প্রথমবার যখন কপিল দেবের হাতে ট্রফি ওঠে, তখন বৃহস্পতি ছিলেন বৃশ্চিক রাশিতে। এরপর ২০১১ সালে দ্বিতীয়বার কাপ জয়ের স্বাদ পায় ভারত। সেই সময় বৃহস্পতি মেষ রাশিতে, রাহু বৃশ্চিক রাশিতে এবং শনি কন্যা রাশিতে অবস্থান করছিলেন। গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থান ২০১১ সালের মতোই এবারও বৃহস্পতি রয়েছে মেষ রাশিতে এবং রাহু মীন রাশিতে। শনি তার মূল ত্রিভুজ রাশিতে অবস্থান করছে। এছাড়া মঙ্গলও নিজস্ব রাশি অর্থাৎ বৃশ্চিকে রয়েছে, যা ভারতের অবস্থানকে মজবুত করছে।

তবে অস্ট্রেলিয়ার রাশিচক্রও খুব একটা খারাপ নেই। ফলে ফাইনালে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। মঙ্গলই অমঙ্গল ডেকে আনবে অস্ট্রেলিয়ার! আজ দুপুর আড়াইটায় ম্যাচ শুরু। আর ঠিক ২টা ৪০ মিনিটে মীনের লগ্ন শুরু হবে। সপ্তম ঘরে থাকবেন রাহু। শুক্রের সঙ্গে কেতু থাকবেন কন্যা রাশিতে। এতে ফলের আশা কমে যায়। একই সময়ে, শত্রু ঘরের অধিপতি বুধ তার অষ্টম ঘরে মঙ্গলের রাশিতে আক্রান্ত হবেন। যার কারণে অস্ট্রেলিয়া একসঙ্গে বেশ কয়েকটি বড় উইকেট হারাতে পারে। গ্রহের গতিপ্রকৃতি সে রকমই ইঙ্গিত দিচ্ছে। আর এর ফায়দা তুলবে ভারত। ফলে ২০১১-র বিশ্বকাপের পুনরাবৃত্তি ঘটে কাপ উঠতে পারে রোহিতদের হাতে।

এমএস

Wordbridge School
Link copied!