• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

কাবুলের একমাত্র বিউটি পার্লার, যেটি বন্ধ করতে পারেনি তালেবান


আন্তর্জাতিক ডেস্ক অক্টোবর ২৭, ২০২১, ০৩:৩২ পিএম
কাবুলের একমাত্র বিউটি পার্লার, যেটি বন্ধ করতে পারেনি তালেবান

ঢাকা: তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর নারীদের ওপর ফের কড়াকড়ি আরোপ করেছে। মেয়ে শিক্ষার্থীদের এখনও স্কুলে যাওয়ার অনুমতি মেলেনি। নারী স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়া অন্য পেশার নারীরা কর্মস্থলে আজও ফিরতে পারেননি।

গত দুমাসে নিজেদের অধিকার রক্ষার দাবিতে আফগান নারীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করলেও তালেবান সরকারকে তাদের বিষয়ে এখনও কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি।

এমন রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতির মধ্যেও রাজধানী কাবুলে ছোট্ট একটি বিউটি পার্লার এখনও খোলা রয়েছে। একমাত্র সেখানেই স্বাধীনতার একটু স্বাদ পান আফগান নারীরা।

কাবুলে ঘরের বাইরে আফগান নারীরা হাতেগোনা যে কয়টি জায়গায় এখনও যেতে পারেন, তার মধ্যে একটি ওই পারলার।

তালেবান সরকারের হুমকির মধ্যেও নিজের বিউটি পারলারটি বন্ধ করেননি মোহাদেসা। আফগান নারীরা সুযোগ পেলেই পার্লারটিতে যান। নিজেদের আধুনিক সাজ ও পোশাকে সজ্জিত করেন। ওই সময় দুঃখ-যন্ত্রণা অন্যদের সঙ্গে ভাগ করেন বা সেসব ভুলে থাকার চেষ্টা করেন। অল্প সময়ের জন্য হলেও হাসিখুশিভাবেই সময়টা পার করেন পার্লারটিতে আসা নারীরা।

৩২ বছর বয়সী মোহাদেসা বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘আমরা হার মানব না। কাজও বন্ধ করব না।

‘আমাদের হাতে কাজ রয়েছে, এটা অনেক স্বস্তির। আফগান সমাজে নারীদের কাজ করা জরুরি। অনেকে তাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি।’

মোহাদেসা তালেবান যোদ্ধাদের কাছ থেকে কোনো হুমকি পাননি, তা কিন্তু নয়। তার পার্লারের বাইরে তালেবান সদস্যরা কয়েকবার গালাগালি করে। তা সত্ত্বেও একচুলও দমেননি মোহাদেসা।

তিনি বলেন, ‘এ পার্লারে কাজ করা নারীরা অনেক সাহসী। হুমকি মাথায় নিয়েও তারা এখানে কাজ করছেন। ‘

পার্লারটিতে আসা ফ্যাশন ডিজাইনার মারওয়া বলেন, ‘আমি মনে করি, প্রত্যেকটি দেশের মানুষের জন্য ফ্যাশন খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ দেশীয় পোশাক না পরলে অন্যদের কাছে কীভাবে আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি তুলে ধরব?

‘নীল বা কালো বোরখা আমাদের পোশাক নয়। আমাদের পোশাক অনেক বেশি বর্ণিল, সুরুচিপূর্ণ ও চমৎকার।’

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System