• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট, ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

রাত ৮টায় দোকানপাট বন্ধের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


নিজস্ব প্রতিবেদক জুন ২২, ২০২২, ০৪:৫৩ পিএম
রাত ৮টায় দোকানপাট বন্ধের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

ফাইল ছবি

ঢাকা: বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে সারাদেশে রাত ৮টার পর বিপণিবিতান-দোকান বন্ধের সিদ্ধান্তে পরিবর্তন এনেছে সরকার। গত সোমবার (২০ জুন) থেকে সারাদেশে বিপণিবিতানসহ বেশকিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান রাত ৮টার পর থেকে বন্ধ হয়ে আসছে। 

তবে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে জনসাধারণের সুবিধার্থে সরকার বিশেষ বিবেচনায় আগামী ১ থেকে ১০ জুলাই দোকানপাট, মার্কেট, বিপণিবিতান বন্ধের সময় সাময়িক পরিবর্তন করে রাত ৮টার পরিবর্তে রাত ১০টা করা হয়েছে।  

বুধবার (২২ জুন) শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

তবে ১০ জুলাইয়ের পর থেকে রাত ৮টায় দোকানপাট, বিপণিবিতান বন্ধের বিষয়ে বাংলাদেশ শ্রম আইনের ১১৪ এর উপধারা ৩ কঠোরভাবে প্রতিপালন করা হবে বলে জানিয়েছে শ্রম মন্ত্রণালয়।

এর আগে গত সোমবার থেকে রাত ৮টার পর সারাদেশে দোকান, বিপণিবিতান, মার্কেট ও মুদি দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

তবে দোকান, বিপণিবিতান, মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হলেও সিনেমা হল, তরিতরকারির দোকান, সেলুন, পান, বিড়ি, সিগারেটসহ বেশকিছু প্রতিষ্ঠান এই নির্দেশনার বাইরে থাকবে।

রাত ৮টার পর খোলা রাখা যাবে যেসব প্রতিষ্ঠান:

০১. ডক, জেটি, স্টেশন, বিমানবন্দর এবং পরিবহন সার্ভিস টার্মিনাল অফিস।

০২. তরিতরকারি, মাছ, মাংস, দুগ্ধজাতীয় সামগ্রী, রুটি, পেস্ট্রি, মিষ্টি এবং ফুল বিক্রির দোকান।

০৩. ওষুধ, অপারেশন সরঞ্জাম, ব্যান্ডেজ অথবা চিকিৎসা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দোকান।

০৪. দাফন ও অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিক্রির দোকান।

০৫. তামাক, সিগারেট, পান-বিড়ি, বরফ, খবরের কাগজ, সাময়িকী বিক্রির দোকান এবং দোকানে বসে খাওয়ার (হালকা) নাশতা বিক্রির খুচরা দোকান।

০৬. খুচরা, পেট্রল বিক্রির জন্য পেট্রলপাম্প এবং মেরামত কারখানা নয় এমন মোটরগাড়ির সার্ভিস স্টেশন।

০৭. নরসুন্দর এবং কেশ প্রসাধনীর দোকান।

০৮. যেকোনো ময়লা নিষ্কাশনকারী প্রতিষ্ঠান ও স্বাস্থ্যকেন্দ্র।

০৯. যেকোনো শিল্প, ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠান যা জনগণকে শক্তি আলো অথবা পানি সরবরাহ করে এমন প্রতিষ্ঠান।

১০. ক্লাব, হোটেল, রেস্তোরাঁ, খাবার দোকান, সিনেমা অথবা থিয়েটার।

তবে শর্ত থাকে যে, একই দোকানে অথবা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে যদি একাধিক ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালিত হয় এবং অধিকাংশ তাদের প্রকৃতির কারণে এই ধারার অধীন অব্যাহতি পাওয়ার যোগ্য হয়, তাহলে সমগ্র দোকান বা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানটির ক্ষেত্রে উক্তরূপ অব্যাহতি প্রযোজ্য হবে।

এছাড়াও প্রধান পরিদর্শক সরকারি গেজেটে প্রজ্ঞাপিত সাধারণ বা বিশেষ আদেশ দ্বারা উপরোক্ত প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান বা প্রতিষ্ঠান শ্রেণীর জন্য খোলা ও বন্ধের সময় স্থির করে দিতে পারিবেন।

মুদি দোকানের ক্ষেত্রে কী হবে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. এহছানে এলাহী বলেন, আইনে যেসব প্রতিষ্ঠান নির্দেশনার বাইরে থাকবে বলা হয়েছে, তার বাইরে সব ধরনের দোকান বন্ধ থাকবে। সেক্ষেত্রে মুদি দোকানও রাত ৮টার পর বন্ধ থাকবে।

সোনালীনিউজ/আইএ

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System