• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০
শখের বসে সেলাই

২শ টাকার বেডশিটে লাখপতি মাসুদা


একেএম সুমন, রংপুর ব্যুরো মার্চ ৯, ২০২৩, ১১:৪৫ এএম
২শ টাকার বেডশিটে লাখপতি মাসুদা

রংপুর: রংপুরে ১০দিনব্যাপী শুরু হওয়া বিসিক উদ্যোক্তা মেলায় স্টল নিয়ে ব্যবসা করছেন মাসুদা বেগম নামে এক নারী উদ্যোক্তা। তবে অন্যান্য উদ্যোক্তার চেয়ে তার উঠে আসার গল্পটা আলাদা। 

শখের বসে মাত্র ২শ টাকায় কেজিতে বিক্রি হওয়া বেডশিট নিয়ে খালাতো বোনের কাছে হাতের সেলাই শিখেন। এখন তার ব্যবসার পরিধি প্রায় ১৫লাখ ছাড়িয়েছ। যেখানে কর্মের ব্যবস্থা হয়েছে ১শ জন নারীর। দৈনিক বেচা-বিক্রি প্রায় ৪০ হাজার টাকা।

বর্তমানের ব্যবসায়ী হয়ে ওঠা মোটেও সহজ ছিল না তখন। ২০০৪ সালে এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন মাসুদা বেগম। রংপুর শহরে খালাতো বোনের বাসায় হতো হ্যান্ডিক্রাফটের কাজ তা দেখে শখ করে কাজ শিখতে চাওয়া বোনের কাছে। এরপর নগরী রেলষ্টেশন এলাকা থেকে ২শ টাকা কেজিতে বিক্রি হওয়া বেডশিট কিনে কাজ শেখেন তিনি।

সেই থেকে শুরু এরপর ভালোবাসার বিয়ে ২০০৯ সালে চাচাতো ভাইয়ের সাথে সবসময় পেয়েছে সমর্থন ফলে বাড়তে থাকে ব্যবসা। তবে করোনার সময় কিছুটা ঘাটতি হলেও এখন আবারও ঘুরে দাড়িয়েছেন তিনি।

রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে উদ্যোক্তা মেলায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রংমেলায় কথা হয় প্রতিবেদকের সাথে। মাসুদা বেগম বলেন, আন্তর্জাতিক নারী দিবসে বলতে চাই প্রত্যেক নারী সফল, নারী মানেই সফল। একজন নারীর কোন না কোন ক্ষেত্রে সফলতা আছেই। হয়তো কিছু সাময়িক বিফলতা কিংবা পিছনে ফিরে যাওয়া প্রত্যেক মানুষের জীবনেই আসে হোক সে নারী বা পুরুষ। তবে এসব ছাপিয়ে সফলতাটাই সবচেয়ে বেশি। আমার ক্ষেত্রে যদি বলি এখন পর্যন্ত সফল। আমি কখনো নিজেকে বিফল নারী হিসেবে দেখিনা। মানুষের জীবনে চড়াই উতরাই থাকে তা মেনে নিয়েই সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হয়।

তিনি বলেন, আমি যখন শখের বসে সেলাইয়ের কাজ শিখি তখন নানান কথা বলেছিল। কিন্তু এসব ছাপিয়ে আজ যখন আমি সফল হয়েছি এখন অনেকেই বাহবা দেয়। তবে সে সময় শুরু থেকেই আমার পরিবারের সাপোর্ট পেয়েছি এরপরে বিয়ে হওয়ার পর আমার স্বামী ব্যবসা বড় করার সাহস দিয়েছেন। সবদিক থেকে সমর্থন পাওয়ার ফলে আজ আমি প্রায় একশ নারীর রোজগারের ব্যবস্থা করতে পেরেছি। এজন্যই আমি বলি নারী মানেই সফল, নারীরা কখনো বিফলতা হয় না। হয় সাংসারিক জীবনে সফল কিংবা সন্তান লালন পালনের সফল কিংবা ব্যবসায়িক হিসেবে সফল হয়েছেন। এককথায় নারীরা কোন না কোন ক্ষেত্রে সফল। তবে সমাজের কিছু কিছু মানুষ আছে যারা নারীদের ভালো কিছু দেখলে সহ্য করতে পারে না এটা থাকবেই সমাজের শুরু থেকেই ছিল এখনো আছে ভবিষ্যতেও থাকবে।

নারীদের উদ্দেশ্যে মাসুদা বেগম বলেন, যারা ব্যবসা করতে বা উদ্যোক্তা হতে আগ্রহী তারা নির্দ্বিধায় করতে পারেন মানুষের কথায় কান না দিয়ে নিজের চিন্তা এবং মননের প্রতিফলন ঘটালেই সফল হওয়া সম্ভব বলেও জানান এই উদ্যোক্তা।

নিজের ইচ্ছে শক্তিকে সঠিক ভাবে কাজে লাগিয়ে হয়ে ওঠা এক সফল নারী উদ্যোক্তা তিনি। বর্তমানে মাসুদা বেগমের প্রতিষ্ঠানে টেইলারিং ১০ জনসহ মোট ১০০ জন নারী কর্মীকে নিয়ে চলছে তার ব্যবসা। 

সোনালীনিউজ/এম

Wordbridge School
Link copied!