• ঢাকা
  • সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

অভিনেতা আহমেদ রুবেল আর নেই


বিনোদন প্রতিবেদক ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৪, ০৭:১২ পিএম
অভিনেতা আহমেদ রুবেল আর নেই

ঢাকা : সন্ধ্যায় নুরুল আলম আতিকের নতুন সিনেমা ‘পেয়ার সুবাস’-এর বিশেষ প্রদর্শনীতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল আহমেদ রুবেলের।

অভিনেতা আহমেদ রুবেল মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্নাইলাহি রাজিউন)।

বৃহস্পতিবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন নির্মাতা নুরুল আলম আতিক। তবে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আহমেদ রুবেলের মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি।

এদিন সন্ধ্যায় নুরুল আলম আতিকের নতুন সিনেমা ‘পেয়ার সুবাস’-এর বিশেষ প্রদর্শনীতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল আহমেদ রুবেলের।

একুশে টেলিভিশনের আলোচিত ধারাবাহিক ‘প্রেত’-এ অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছিলেন আহমেদ রুবেল। আহীর আলম পরিচালিত প্রেত নাটকের গল্প লিখেছিলেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। তারপর থেকে নাটকে ও সিনেমায় ক্রমশ ব্যস্ত হয়েছেন তিনি।

একসময় নন্দিত লেখক হুমায়ূন আহমেদের পরিচালনায় অভিনয় শুরু করেন। তার পরিচালিত ‘শ্যামল ছায়া’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন আহমেদ রুবেল। অনেকগুলো ধারাবাহিক নাটকেও অভিনয় করেছেন তিনি। এর মধ্যে রয়েছে সালাউদ্দিন লাভলুর ‘রঙের মানুষ’ ও মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘৬৯’।

তার অভিনীত ‘গেরিলা’, ‘মেঘলা আকাশ’, ‘আলফা’, ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’সহ আরও বেশ কয়েকটি সিনেমা প্রশংসিত হয়েছে।

কীভাবে মারা গেলেন আহমেদ রুবেল?

গাজীপুরের বাড়ি থেকে বেরিয়ে গাড়ি নিজেই চালিয়ে আসছিলেন আহমেদ রুবেল। পথে উত্তরা থেকে নির্মাতা নূরুল আলম আতিককে গাড়িতে তুলে নেন; সঙ্গে সহকারী পরিচালক ছিলেন। বিকেল সোয়া ৫টার দিকে বসুন্ধরা সিটিতে পৌঁছান তিনি।

গাড়ি নিয়ে সোজা বসুন্ধরা সিটির বেজমেন্টে ঢুকে গাড়ি রেখে হাঁটছিলেন; এর মধ্যে হুট করে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান। পাশে থাকা নির্মাতা আতিক, নিরাপত্তারক্ষী মাসাদুল হকসহ আরও কয়েকজন এগিয়ে আসেন।

মাসাদুল হক জানান, দেয়ালে লেগে তাঁর কপাল ফুলে যায়। ধরাধরি করে তাঁরা আহমেদ রুবেলকে পাশের চেয়ারে বসান। মাথায় পানি দেন। তিনি বলেন, ‘আমরা ভেবেছিলাম, উনি মাথা ঘুরে পড়ে গেছেন। তাই মাথায় পানি দিচ্ছিলাম। তখন তাঁর জ্ঞান ছিল। বারবার ঢেঁকুর তুলছিলেন।’

রুবেলকে বসুন্ধরা সিটির প্রথম তলায় জরুরি প্রাথমিক চিকিৎসাকেন্দ্রে নেওয়া হয়। মাসাদুল বলেন, তখনো রুবেলের জ্ঞান ছিল। প্রাথমিক চিকিৎসাকেন্দ্রে দায়িত্বরত চিকিৎসক রুবেলকে জরুরি ভিত্তিতে হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। হুইলচেয়ারে বসিয়ে প্রথম তলা থেকে বসুন্ধরা সিটির নিচে নামানো হয় রুবেলকে।

এরপর রুবেলকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তোলা হয়। সিএনজিতে পরিচালক আতিকও ছিলেন। পাশের স্কয়ার হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয় রুবেলকে। হাসপাতালের চিকিৎসক নাম না প্রকাশের শর্তে জানান, আহমেদ রুবেলকে বিকেল ৫টা ৫০ মিনিটে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তিনি বলেন, ‘তাঁর পালস ছিল না। পরীক্ষা–নিরীক্ষা করে আমরা নিশ্চিত হই, ডেড অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল।’ বিকেল ৫টা ৫৮ মিনিটে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

বসুন্ধরা সিটি থেকে হাসপাতালে নেওয়ার সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে রুবেলের। ধারণা করছেন, হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে রুবেলের মৃত্যু হয়েছে।

এমটিআই

Wordbridge School
Link copied!