• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
abc constructions

‘গরু ঠিকই বাধলো তবে রশি দিলো লম্বা’


নিউজ ডেস্ক: মে ৭, ২০২১, ০৯:২১ পিএম
‘গরু ঠিকই বাধলো তবে রশি দিলো লম্বা’

ঢাকা: ঈদ সামনে রেখে দম ফেলার ফুরসত নেই বিক্রেতাদের। ক্রেতারা দরদাম করছেন আর কিনছেন।ফুটপাতেও বিক্রেতাদের হাঁকডাক, রাস্তায় মানুষ আর নানা যানবাহনে একাকার। ফুটপাত তো বটেই, রাস্তার উপর ফুটওভারব্রিজেও হাঁটার জো নেই।রমজানের শেষ শুক্রবার (৭ মে) রাজধানীর সকল মার্কেটেই একই অবস্থা।

করোনা মহামারিতে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেদের মধ্যে শপিংমলগুলোর এমন অবস্থায় চিন্তার ভাঁজ পড়েছে সচেতন মানুষের মনে।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে সমালোচনা। 

‘ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম সমর্থক গ্রুপ’নামের একটি পেইজে একজন লিখেছেন-

প্রতিবেশী বললো, মিয়া তোমার গরু বাইন্ধা রাখো। লোকটা গরু ঠিকই বাধলো, তবে রশি দিলো লম্বা।
তো যা হবার তাই, আবার ক্ষেত নষ্ট।

প্রতিবেশী এইবার বললো, মিয়া গরুর রশি খাটো করো। লোকটা রশি খাটো করলো ঠিকই, সাথে খুটি দিলো আগাইয়া।প্রতিবেশী তো এইবার খ্যাপা, ধুরো মিয়া তুমি রশিও খাটো করো আবার খুটিও দুরে সরাও।

তো লোকটা এইবার খুঁটি একবারে দুরে সরাইয়া রাইখা, রশি খাটো কইরা, গরু দিলো বেড়ার লগে বাইন্ধা। এইবার তো প্রতিবেশীর মাথা আরও নষ্ট।

লোকটারে গিয়া কইলো, ভাইরে! তোর কাছে মাফ চাই।
তুই তোর গরু ছাইরাই রাখ, ছাইড়া রাখলে তোর গরু আমার ক্ষেতে কমই আসে, অন্য দিকেও যায়।

তো আমাদের লকডাউনের অবস্থা হইছে এইরকম। মানুষের গ্যাদারিং তো কমেই নাই, বরং ত্রাণ খাইতাছে ফাও, সরকারের ঘুম হারাম, মাঝখান দিয়া কাজকাম সব বন্ধ।

এই লকডাউন ছাইড়া দেওয়াই ভালো, যেগুলো বাঁচার বাঁচবো না হয় মইরা যাইবো।
অন্তত মানুষ কাম কইরা খাউক।

ফেসবুক থেকে নেয়া

উল্লেখ্য, চলমান লকডাউনে ব্যবসায়ীদের কথা বিবেচনা করে গত ২৫ এপ্রিল থেকে ঢাকার দোকানপাট ও বিপণিবিতান খুলে দেয় সরকার। কিন্তু তখন বন্ধ ছিল গণপরিবহন। তাই ক্রেতাও ছিল কম। তবে, বৃহস্পতিবার থেকে বাস চালুর পর পরিস্থিতি অনেকটা পাল্টেছে।

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School