• ঢাকা
  • সোমবার, ২৭ জুন, ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯
মেট্রোরেল প্রকল্প

মতিঝিল পর্যন্ত কাজ শেষ ৮০ শতাংশ


নিজস্ব প্রতিবেদক জুন ১৬, ২০২২, ০১:৩৮ পিএম
মতিঝিল পর্যন্ত কাজ শেষ ৮০ শতাংশ

ঢাকা : মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজ ৮০ শতাংশ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এম এ এন সিদ্দিক।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বুধবার (১৫ জুন) এক সেমিনারে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

মেট্রোরেল প্রকল্পের এমআরটি লাইন-৬-এর অগ্রগতি ও এমআরটি লাইন-১-এর লাইসেন্স হস্তান্তর নিয়ে ওই সেমিনারের আয়োজন করে প্রকল্পটির দায়িত্বপ্রাপ্ত কোম্পানি ডিএমটিসিএল।

মতিঝিল পর্যন্ত ৮০ শতাংশ কাজ শেষ উল্লেখ করে ডিএমটিসিএলের এমডি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছিলেন যে এটার কাজ ফেইসওয়াইজ করতে হবে, যার জন্য প্রথম ফেইস আগারগাঁও পর্যন্ত শুরু করেছিলাম। যখন প্রায় ৭০-৭৫ শতাংশ কাজ হয়েছিল, তখন আমরা দ্বিতীয় ফেইস শুরু করেছিলাম। পর্যায়ক্রমে আমরা ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যালের কাজ তৃতীয় ফেইসে শুরু করেছি।

তিনি বলেন, প্রকল্প সময়ের আগেই এ কাজ শেষ হচ্ছে। বাংলাদেশে এ ধরনের ঘটনা খুবই কম। ইতোমধ্যে প্রথম অংশের কাজ ৯২ দশমিক ৪৯ শতাংশ শেষ করেছি। দ্বিতীয় অংশের ৮০ শতাংশ এবং ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল ৮১ শতাংশের মতো কাজ শেষ হয়েছে। অর্থাৎ মতিঝিল পর্যন্ত কাজের অগ্রগতি ৮০ শতাংশ।

তিনি জানান, আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত অংশ ২০২৩ সালে উদ্বোধনের কথা বলছি, যা সময়ের আগেই উদ্বোধন করা হবে। এখানে প্রায় ৮০ শতাংশ কাজ শেষ করে ফেলেছি। এখন স্টেশনের ওপর যে স্ট্রাকচার হবে সেটার কাজ করছি।

মেট্রোরেল পরিচালনার জন্য প্রথম ডিপোকে পূর্ণাঙ্গভাবে প্রস্তুত করতে হয় বলে জানান তিনি। ডিপোর আর কোনো কাজ বাকি নেই জানিয়ে তিনি বলেন, ডিপোর জন্য ভূমি উন্নয়ন কাজ নির্ধারিত সময়ের ৯ মাস আগে আমরা শেষ করেছি। এখানে ৫২টি স্থাপনা তৈরির কাজ ছিল, যার মধ্যে ৪৭টি করেছি। টানেলের ভেতর আমাদের ডিপোটা পড়েছে। সে জন্য আমরা বড় বড় বিল্ডিং করতে পারিনি।

মেট্রোরেলের বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিয়ে তিনি বলেন, মেট্রোরেলকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে হবে। সেটার জন্য এমনভাবে ব্যবস্থা নিয়েছি যে আমাদের জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডের মাল্টিপল উৎস থেকে আমরা বিদ্যুৎ নিয়েছি। অর্থাৎ জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিড ফেল না করলে মেট্রোরেলে বিদ্যুৎ যাবে না। তার পরও আমরা একটি জেনারেটরের ব্যবস্থা রেখেছি।

উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট এডিকশন করা হয়েছে বলে জানান তিনি। বলেন, এখানে ৯টি মেট্রোস্টেশন। সবগুলো স্টেজের কাজ পার হয়ে আমরা রুফ শিট পর্যন্ত নির্মাণকাজ শেষ করেছি। এখন এই রুটে স্টেশনের ভেতর ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল কাজ চলছে।

তিনি বলেন, ৯টি স্টেশনের ভেতর উত্তরা উত্তর, উত্তরা মধ্য, উত্তরা দক্ষিণ ও পল্লবীর কাজ শেষ হয়েছে। এ ছাড়া বাকি পাঁচটি স্টেশনের কাজ চলছে। আমরা আশা করি, আগামী দু-তিন মাসের ভেতর পুরো অংশের কাজ শেষ করতে পারব।

উত্তরার উত্তর থেকে আগারগাঁও রুটে রেললাইন বসানোর কাজের অগ্রগতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ কাজ আমরা শেষ করেছি। এখানে বৈদ্যুতিক সিস্টেম চালুর কথা ছিল। বৈদ্যুতিক সিস্টেমের জন্য সরঞ্জাম নিয়ে এসেছি এবং বসিয়েছি। বিটিআরসির সঙ্গে এ বিষয়ে আমাদের আলোচনা হয়েছে। এখানে আমরা ফাইভজি তরঙ্গ ব্যবহার করব। ১৪ সেট মেট্রো ট্রেন ডিপোতে এসে পৌঁছেছে। আরও দুটি আসছে বলে জানান তিনি।

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিনুল্লাহ নূরী। উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রওশন আরা মান্নান প্রমুখ।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System