• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

সামাজিক নিরাপত্তা খাতে বরাদ্দ বেড়েছে ৭ হাজার কোটি


নিজস্ব প্রতিবেদক জুন ৬, ২০২৪, ০৪:০০ পিএম
সামাজিক নিরাপত্তা খাতে বরাদ্দ বেড়েছে ৭ হাজার কোটি

ঢাকা: ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বেলা ৩টায় সংসদের অধিবেশন শুরু হওয়ার পর অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ‘টেকসই উন্নয়নের পরিক্রমায় স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্নযাত্রা ’ শীর্ষক বাজেট বক্তৃতা শুরু করেছেন।

আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিতে ব্যয়ের আকার অন্তত ৭ হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে। বরাদ্দ বাড়ানো হলেও এবারের বাজেটে শেষ পর্যন্ত উপকারভোগীদের ভাতার হার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে সরকার। 

এর পরিবর্তে সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনীর বিদ্যমান কর্মসূচির আওতায় বেশি করে উপকারভোগী বাড়ানো হচ্ছে। এতে এ দফায় বাজেটে প্রায় ২০ লাখ উপকারভোগী বাড়তে চলেছে। 

প্রস্তাবিত এই বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় প্রায় ৫ কোটি মানুষকে বছরব্যাপী নগদ ভাতা, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি অব্যাহত রাখা এবং সুলভমূল্যে খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিতে ১ লাখ ৩৩ হাজার ২৭২ কোটি টাকা ব্যয়ের প্রস্তাব করেন। চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছর সামাজিক নিরাপত্তা বলয়ের ১৩০টি কর্মসূচির আওতায় বাজেটে ১ লাখ ২৬ হাজার ২৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছিল। 

সেই হিসাবে আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে এ ব্যয় ৭ হাজার কোটি টাকা বেড়েছে। গত ২০২২-২৩ অর্থবছরে সামাজিক নিরাপত্তায় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৭৬ কোটি টাকা। তারও আগে ২০২১-২২ অর্থবছরে সামাজিক নিরাপত্তায় ব্যয় ধরা হয় ৯৫ হাজার কোটি টাকার বেশি। দেশে ১৪ মাস ধরে মূল্যস্ফীতি ৯ শতাংশের উপরে অবস্থান করছে। 

বৈশ্বিক দীর্ঘমেয়াদি সংকট, অভ্যন্তরীণ উৎপাদন সীমাবদ্ধতা, চাহিদাযোগ্য পণ্যের অতিমাত্রার আমদানিনির্ভরতা, ডলারের দাম লাগামহীন বৃদ্ধি এবং সংকোচনমূলক মুদ্রানীতির বিরূপ প্রভাব পড়ছে অর্থনীতিতে। এতে কমছে বিনিয়োগ, কমছে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ। অথচ ক্রমে বাড়ছে জীবনযাত্রার ব্যয়।

আগামী অর্থবছরের বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপের মধ্যে বয়স্কভাতাভোগীর আওতা বাড়িয়ে নতুন যুক্ত করা হচ্ছে আরও ২ লাখ প্রবীণকে। সব মিলে আগামী অর্থবছর এই কর্মসূচির আওতায় ৬০ লাখ মানুষকে ভাতা সুবিধা দেওয়া হবে। 

তাদের ভাতা আগের মতো ৬০০ টাকাই বহাল থাকছে। এ ছাড়া বাড়ছে বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতাদের ক্ষেত্রে ভাতাভোগীর সংখ্যা। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, আগামী বাজেটে বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতাদের ভাতাভোগীর সংখ্যা বাড়ছে ২ লাখ ৬০ হাজার ৮০০ জন। এই হিসাবে আগামী অর্থবছর এ কর্মসূচিতে মোট সুবিধা পাবেন ২৭ লাখ ৭৫ হাজার জন। তাদের ভাতার পরিমাণ চলতি বছরের মতো ৫৫০ টাকাই অপরিবর্তিত থাকছে। 

মা ও শিশু সহায়তা কর্মসূচির ক্ষেত্রে ভাতার পরিমাণ আগের মতোই রেখে নতুন করে উপকারভোগী বাড়ানো হচ্ছে আরও ২ লাখ ৬০ হাজার ৮০০ জন। বর্তমানে ১৩ লাখ ৪ জন এ সুবিধা পাচ্ছেন। এর ফলে আগামী বাজেটের মাধ্যমে এ কর্মসূচিতে সরাসরি ভাতা সহায়তা পাবেন ১৫ লাখ ৬৪ হাজার মা ও শিশু। 

এ ছাড়া প্রতিবন্ধী ভাতাভোগীও বাড়ছে। আগামী বাজেটে এ সংখ্যা ৩ লাখ ৩৪ হাজার জন বাড়িয়ে মোট ৩২ লাখ ৩৪ হাজার জনে উন্নীত করা হচ্ছে। 

এ ছাড়া হিজড়া, বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর আওতা ১২ হাজার ২২৯ জন নতুন করে আগামী বাজেটের মাধ্যমে ভাতা সুবিধার আওতায় ভিড়ছে। সব মিলে এই খাতে সরকার আগামী অর্থবছর থেকে ৭৭ হাজার ২২৯ জনকে বর্তমান হারে ভাতা প্রদান করবে।

এআর

Wordbridge School
Link copied!