• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের ঋণ মওকুফে বেবিচককে বিএসইসির চিঠি


নিজস্ব প্রতিবেদক সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১, ১২:১৬ পিএম
ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের ঋণ মওকুফে বেবিচককে বিএসইসির চিঠি

ঢাকা: ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বাংলাদেশ লিমিটেড এর শেয়ার হোল্ডারদের স্বার্থে এবং পুঁজিবাজারের বিনিয়োকারীদের আস্থা ফিরিয়ে আনতে এবং এয়ারলাইনটির মেয়াদোর্ত্তীন এয়ার অপারেটর সার্টিফিকেশন (এওসি) নবায়ন করতে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) পাওনা ৩৫৫ কোটি ৩৬ লক্ষ ৮৯ হাজার ৭৫২ টাকা মওকুফের জন্য চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিএসইসি গত ২৮ ফ্রেব্রুয়ারি দেশের পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এয়ারলাইন কোম্পানি ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বাংলাদেশ লিমিটেডের উদ্যোক্তা পরিচালকবৃন্দের অপসারন করে পরিচালক পর্ষদ বাতিল ঘোষণা করেছে। কোম্পানিটির ১ লাখ ৬০ হাজার প্রান্তিক বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগকৃত অর্থ সুরক্ষিত করার জন্য ২০১৫ সাল থেকে নতুন পরিচালনা পর্ষদ ৪ মার্চ, ২০২১ দায়িত্ব গ্রহণ করে এয়ারলাইনটির কার্যক্রম আবার চালু করেন। এছাড়া এ বিষয়ে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনার জন্য গত ১০ মার্চ চিটি পাঠায় নতুন পর্ষদ। পরবর্তীতে গত ১৮মে ২০২১ এয়ারলাইনটির কার্যক্রম পুনরায় চালু করতে প্রয়োজনী বাণিজ্যিক পরিকল্পনা বেবিচককে জানান।

২০১৫ সালে বন্ধ হয়ে যাওয়া ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ চালু করতে গত ১১ আগস্ট ২০২১ তারিখে নতুন বোর্ডের সাথে বেবিচকের একটি বৈঠক হয়। বৈঠকে ২ ও ৩ নং সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পাওনা বকেয়া টাকার বিষয়ে সরকারের সিন্ধান্ত পাওয়ার পর ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের এয়ার অপারেটর সার্টিফিকেটের (এওসি) আবেদন করতে পারবে বলে জানান। 

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর বাৎসরিক ৭২ শতাংশ হারে সারচার্জের কারণে কোম্পানিটির বকেয়া বেড়েই চলেছে। অন্যদিকে কোম্পানিটির উদ্যোক্তা পরিচালক ও আগের কর্তুপক্ষের সীমাহীন দুর্নীতি ও তহবিলের কারণে এয়ারলাইনটি দেওলিয়া হওয়ার দ্বারপ্রান্তে। কয়েকটি ব্যবহার অযোগ্য এয়ারক্রাফট ছাড়া কোম্পানির কোন সম্পদ কিংবা তহবিল নাই। যা থেকে উক্ত দায় পরিশোধ করা সম্ভব হবে না। তাই সব কিছু বিবেচনা করে বিএসইসি এই উদ্যোগ নিয়েছে।

সোনালীনিউজ/এমএইচ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System