• ঢাকা
  • বুধবার, ০৪ আগস্ট, ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮
abc constructions

‘শয়তানের চোখে তো ভগবানও ভালো নয়’


বিনোদন ডেস্ক জুন ২০, ২০২১, ১০:১৪ পিএম
‘শয়তানের চোখে তো ভগবানও ভালো নয়’

ঢাকা : ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আলোচিত ও সমালোচিত অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের সঙ্গে যশ দাশগুপ্তের সম্পর্কের কথা গণমাধ্যমে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়েছে।

রোববার (২০ জুন) হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, এত কিছুর পরও ‘কুছ তো লোক কহেঙ্গে’ এমনটাই ভাবনা অভিনেতা যশের। তবে নুসরাত জাহানের সঙ্গে নিজের সম্পর্ক নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন তিনি। সংবাদমাধ্যমের সামনে গোটা বিষয় নিয়ে একটি শব্দও খরচ করেননি। অথচ সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করে চলেছেন।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়,  নুসরাত দিন কয়েক আগেই বিবৃতি দিয়ে নিখিলের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন। জানিয়েছেন, নিখিলের সঙ্গে তার বিয়ে অবৈধ। ওই সম্পর্ককে লিভ টুগেদার বলে আখ্যা দেন বসিরহাটের তারকা সংসদ সদস্য।

গত ১১ জুন নুসরাতের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবরে শিলমোহর পড়েছিল, এদিন নিজেই বেবি বাম্পের ছবি পোস্ট করে দিয়ে নতুন করে আলোচনায় আসেন নুসরাত।

এর মাঝেই নুসরাতের বয়ফ্রেন্ড যশ দাশগুপ্তর বার্তা, ‘নিজের চোখে ঠিক থাকাটাই যথেষ্ট, শয়তানের চোখে তো ভগবানও ভালো নয়’।

নিজের অবস্থানকে সঠিক প্রমাণ করতে এবার ভগবান আর শয়তানের উদাহরণ টেনে বসলেন যশ। নুসরাত ও তার বিশেষ বন্ধুকে নিয়ে জোর আলোচনা টলিপাড়ায়। নিখিল আগেই নুসরাতের সন্তানের পিতৃত্ব অস্বীকার করেছেন।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, অন্যদিকে ঘনিষ্ঠমহলসূত্রে খবর, গত ছয়মাস ধরে নাকি এক ছাদের তলাতেই থাকছেন দুই তারকা যশ ও নুসরাত। নুসরাত তার হবু সন্তানের বাবার পরিচয় ফাঁস না করলেও, দুইয়ে দুইয়ে চার করে নিতে অসুবিধা হচ্ছে না নেটিজেনদের।

যশের নীরবতা নিয়ে নানা প্রশ্ন এখন সামনে এসেছে। সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের কমেন্ট বক্সে উপচে পড়ছে প্রশ্নবাণ। কেন চুপ রয়েছেন যশ? কেন নিজের অবস্থান স্পষ্ট করছেন না? জানতে চান অনেকেই। কেউ কেউ তো যশকে নির্লজ্জ বলেও দাবি করেন। নিখিল-নুসরাতের সংসার ভাঙার জন্য যশই দায়ী লিখছেন অনেকে।

দুদিন আগেই যশের কমেন্ট বক্সে এক নেটিজেন তোপ দেগে লিখেছিলেন, 'তুমি অনেকের অনুপ্রেরণা ছিলে। তাই বলছি, অন্য কাউকে এ রকম শিক্ষা দিও না যে তারাও অন্য কারও জীবন নরকে পরিণত করে। অন্তত তোমার পরের প্রজন্মকে অমানুষ হতে শিখিও না। এতটুকুই অনুরোধ ছিল।’ উপরের মন্তব্যের মতো নেতিবাচক মন্তব্যগুলোর জবাব দিয়েছেন বলেই সবাই ধারণা করছেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Dutch Bangla Bank Agent Banking
Wordbridge School