• ঢাকা
  • বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯

বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম, সারাদেশে বিক্ষোভ


নিউজ ডেস্ক আগস্ট ৬, ২০২২, ০৪:৪৩ এএম
বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম, সারাদেশে বিক্ষোভ

ঢাকা : জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার। ডিজেলের দাম লিটারে ৩৪ টাকা, অকটেন ৪৬ টাকা আর পেট্রল ৪৪ টাকা বাড়ানো হয়েছে। 

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১২টার পর থেকে নতুন এ দাম কার্যকর হয়েছে। দাম বাড়ানোর এ খবরে রাত ১২টা বাজার আগেই জেলায় জেলায় পেট্রলপাম্প বন্ধ হয়ে যায়। এতে বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেছেন মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন যানবাহনের চালকেরা। 

সারাদেশে সোনালীনিউজ-এর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

সিলেট : সিলেটে পাম্পগুলো রাত ১২টা বাজার আগেই বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে সড়ক অবরোধ করেছেন মোটরসাইকেলচালকেরা। সিলেটের চারটি জ্বালানি তেল বিক্রি করা পাম্প ঘুরে দেখা গেছে, আলো নিভিয়ে কর্তৃপক্ষ চলে গেছে। পাম্পগুলোতে কয়েক শ মোটরসাইকেলের লাইন। চারটি পাম্পের একটিতে রয়েছেন পুলিশ সদস্যরা।

নগরের মদিনা মার্কেট এলাকার নর্থ ইস্ট অয়েল ফিলিং স্টেশন, জিন্দাবাজার এলাকার জালালাবাদ ট্রেডার্স ও সোবাহানীঘাট এলাকার একটি পাম্পের আলো নেভানো এবং পাম্প বন্ধ অবস্থায় দেখা গেছে।

মোটরসাইকেল আরোহীদের অভিযোগ, শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত পাম্পগুলোতে জ্বালানি তেল বিক্রি করা হয়েছে। হঠাৎই তেলের দাম বাড়ানোর খবরে পাম্পমালিক ও কর্মচারীরা তেল বিক্রি বন্ধ করে দেন। সেই সঙ্গে পাম্পগুলোর আলো নিভিয়ে বন্ধ করে চলে যান। এতে পাম্পগুলোতে জ্বালানি তেল নিতে আসা মোটরসাইকেল ও যানবাহনের চালক এবং আরোহীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন।

রাত ১১টার দিকে সিলেট নগরের সোবহানীঘাট এলাকার বেঙ্গল গ্যাসোলিন অ্যান্ড সার্ভিস ফিলিং স্টেশনের সামনে মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কারের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে। এ সময় পাম্প কর্মচারীদের সঙ্গে তাঁদের চালকদের বাগ্‌বিতণ্ডা করতে দেখা যায়। পাম্পের এক কর্মচারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘পাম্পমালিক বিক্রি বন্ধ করে রাখতে বলেছেন। এতে আমাদের কিছু করার নেই। একপর্যায়ে মোটরসাইকেল ও যানবাহনের চালকেরা পাম্পের সামনে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন।’

রাত পৌনে ১১টার দিকে সিলেট নগরের মদিনা মার্কেট এলাকার নর্থ ইস্ট অয়েল পাম্পেও মোটরসাইকেলের চালকদের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে। তেল না পেয়ে একপর্যায়ে তাঁরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন।

সোবহানীঘাট এলাকার বেঙ্গল গ্যাসোলিন অ্যান্ড সার্ভিসিং স্টেশনে পেট্রল নিতে আসা নগরের শাহজালাল উপশহর এলাকার বাসিন্দা ফাহাদ মোহাম্মদ হোসেন বলেন, ‘জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে। এ খবর শোনার আগে পাম্পে এসেছিলাম। কিন্তু তারা তেল বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে। তাই বিক্ষোভে যোগ দিয়েছি।’

সিলেট মহানগর পু‌লিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) বি এম আশরাফ উল‌্যাহ বলেন, পাম্পগুলোতে জ্বালানি তেল না পেয়ে অনেকে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঠেকাতে পুলিশ মাঠে রয়েছে।

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম নগ‌রের দুই নম্বর গেটের পলিটেকনিক এলাকার সেনা ফি‌লিং স্টেশনে রা‌ত সা‌ড়ে ১১টার দি‌কে দেখা যায়, কমপক্ষে ২০০ মোটরসাইকেলচালক তেল কেনার অপেক্ষায়। এ ছাড়া ৫০টির মতো ব‌্যক্তিগত গা‌ড়ি ও মাইক্রোবাস অপেক্ষায় রয়েছে।

আরিফুর রহমান নামের এক মোটরসাইকেলচালক প্রথম আলোকে ব‌লেন, তে‌লের দাম বাড়ানো খবর শুনে তিনি তেল কিনতে আসেন। প্রায় ৪৫ মিনিট অপেক্ষার পর তেল পান। তাঁর কাছে ২০০ টাকার তেল বিক্রি করেছে। এর বে‌শি বি‌ক্রি করেনি।

রাত ১২টার দি‌কে গ‌ণি বেকা‌রি এলাকার আরেকটি ফি‌লিং স্টেশন কিউসি ট্রেডিংয়ে গি‌য়ে সে‌টি বন্ধ পাওয়া যায়। সেখা‌নে তেল নি‌তে এসে কমপ‌ক্ষে ১০ জন‌কে ফেরত যে‌তে দেখা যায়।

সাতক্ষীরা : পেট্রল ও অকটেন বিক্রি বন্ধ করে দেওয়ায় সাতক্ষীরা শহরের এ বি খান পেট্রলপাম্পের সামনে সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করেন মোটরসাইকেলের চালকেরা। রাত সোয়া ১১টার দিকে তাঁরা রাস্তা অবরোধ করলে ১৫ মিনিট পর পুলিশ এসে তাঁদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দেয়।

রাজশাহী : রাজশাহীতে পেট্রলপাম্পে তেল দেওয়া বন্ধ করায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করেছেন মোটরসাইকেলচালকেরা।

গাজীপুর : গাজীপুরের শ্রীপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের প্রায় সব ফিলিং স্টেশন শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন দুই শতাধিক গ্রাহক।

রংপুরে : দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ঘোসণা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রংপুরে পেট্রলপাম্প বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে তেল কিনতে গিয়ে বিপাকে পড়েন গ্রাহকরা। একপর্যায়ে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন তারা। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এর আগে শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয় সরকার। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে জ্বালানি তেলের বর্ধিত দাম কার্যকরের কথা থাকলেও আগেভাগেই পাম্প বন্ধ করে দেওয়ায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

তেল কিনতে আসা রাব্বি নামে এক মোটরসাইকেলচালক বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে, রাত ১২টার পর কার্যকর হবে। কিন্তু রাত ১০টার মধ্যে রংপুরের সব ফিলিং স্টেশন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আরেক বিক্ষোভকারী মকবুল মিয়া বলেন, রাত পোহালে প্রায় দ্বিগুণ লাভ, এই আশায় রাত ১২টা বাজার আগেই ফিলিং স্টেশনের মালিকরা তেল দেওয়া বন্ধ করে দিলেন। কিন্তু প্রশাসন চুপচাপ। তাই আমরা রাস্তা বন্ধ করে প্রতিবাদ করছি।

ফিলিং স্টেশনে তেল নিতে আশা রবিউল নামে এক ক্রেতা বলেন, মোটরসাইকেলের তেল শেষ হওয়ায় তেল নিতে এসেছিলাম। এসে দেখি অনেকেই তেল না পাওয়ায় বিক্ষোভ করছেন। আমি নিজেও যেহেতু ভুক্তভোগী, তাই আমিও বিক্ষোভে অংশ নিয়েছি।

রংপুর মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম বলেন, এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। সড়কে যানচলাচল করছে।

বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে এটি কার্যকর হবে। নতুন দাম অনুযায়ী ডিজেল ও কেরোসিন প্রতি লিটার ১১৪ টাকা, অকটেন ১৩৫ এবং পেট্রল ১৩০ টাকা করা হয়েছে।

পটুয়াখালী : জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে পটুয়াখালীর ‘কুয়াকাটা ফিলিং স্টেশনে’ তালা ঝুলিয়ে উধাও হয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো পর্যটক।

সেখানে বিশৃঙ্খলা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করা হয় বলেও জানান মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১২টার পর জ্বালানি তেলের নতুন দাম কার্যকর হবে- সরকারের এমন ঘোষণায় রাত ১০টা ৩০ মিনিটের দিকেই পাম্প বন্ধ করে সবাই চলে গেছে বলে অভিযোগ করেন জাকির নামের এক গ্রাহক।

তিনি বলেন, আমি মোটরসাইকেল নিয়ে এসেছি, তখনো পাম্পে লোক ছিল। আমি তেল চাইলে তারা বলেন, তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে, তাই এখন হবে না, কালকে আসেন। এই বলে তারা পাম্পের অফিসে তালা মেরে চলে যান।

ঢাকা থেকে আগত পর্যটক সজিব বলেন, আমরা মাইক্রোবাস নিয়ে কুয়াকাটা এসেছি। এখন তেল দরকার, কিন্তু এসে দেখি অনেক লোক। আমিও ১ ঘণ্টা ধরে দাঁড়িয়ে আছি, কিন্তু পাম্পের লোক আসে না। আমরা অনেক ভোগান্তিতে পড়েছি।

একাধিক মোটরসাইকেল, মাইক্রোবাস ও বাসচালকও তেল নিতে এসে পাম্পের চারপাশে অপেক্ষা করছেন।

তাদের একজন বলেন, সরকারের নিয়ম অনুযায়ী রাক ১২টায় তেলের দাম বাড়বে, কিন্তু তার দেড় ঘণ্টা আগে কেন পাম্প বন্ধ করলো? আমরা কি গাড়ি পানি দিয়ে চালাবো?

কুয়াকাটা ফিলিং স্টেশনের সামনে দেওয়া নাম্বারে ফোন করলে আব্দুল কাদের নামের একজন ফোন ধরেন। তিনি বলেন, আমরা প্রতিদিন ১০টার মধ্যে পাম্প বন্ধ করে দেই। প্রতিদিনের মতো আজকেও বন্ধ করেছি।

তেল না দেওয়ার অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যখন বন্ধ করেছি তখন কেউ তেল নিতে আসেননি।

এদিকে ওসি আবুল খায়ের বলেন, পাম্প বন্ধের খবরে সেখানে বিশৃঙ্খলা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করেছি। এর কিচ্ছুক্ষণ পরই আবার তিনি মোবাইল ফোনে জানান, পাম্প খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।

বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে এটি কার্যকর হবে। নতুন দাম অনুযায়ী ডিজেল ও কেরোসিন প্রতি লিটার ১১৪ টাকা, অকটেন ১৩৫ এবং পেট্রল ১৩০ টাকা করা হয়েছে।

খুলনা :  জ্বালানি তেলের দাম দাম বাড়ানোর ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই বাড়তি দামে তেল বিক্রি শুরু করেছে খুলনার বেশ কিছু পেট্রলপাম্প। তবে এ বিষয়ে একেবারেই মুখে কুলুপ এটেছেন মালিক ও কর্মচারীরা। সাংবাদিক শুনেই মুখ ঘুরিয়ে নিচ্ছেন অন্যদিকে।

এদিকে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে খুলনার পেট্রলপাম্পগুলোতে তেল কেনার হুড়োহুড়ি শুরু হয়েছে। তবে কোনো পাম্পেই আগের দামে তেল পাওয়া যাচ্ছে না বলে ক্ষোভ জানিয়েছেন গাড়িচালকরা।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাতে নগরীর জিরো পয়েন্ট এলাকায় খোলা থাকা একটি পাম্পে দেখা যায়, মোটরসাইকেল ও ছোট ছোট যানবাহনের দীর্ঘ লাইন। তেলও মিলছে, কিন্তু নতুন দামে।

তেল নিতে আসা মোটরসাইকেলচালক আল আমিন বলেন, এখন রাত ১১টা, তেলের নতুন মূল্য কার্যকর হবে রাত ১২টায়। কিন্তু এখনই নতুন দামে তেল বিক্রি শুরু হয়েছে।

বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে এটি কার্যকর হবে। নতুন দাম অনুযায়ী ডিজেল ও কেরোসিন প্রতি লিটার ১১৪ টাকা, অকটেন ১৩৫ এবং পেট্রল ১৩০ টাকা করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ : তেল না পেয়ে ঝিনাইদহ-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন মোটরসাইকেলচালকরা। শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাতে মহাসড় অবরোধ করেন তারা। এতে মহাসড়কের দুই পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

জ্বালানি তেলে দাম বৃদ্ধির ঘোষণার পর থেকেই ঝিনাইদহের সবকটি পাম্পে উপচেপড়া ভিড় লক্ষ করা যায়। মোটরসাইকেল নিয়ে পাম্পে তেল কিনতে আসেন অনেকে। তবে রাত ১২টার পর বন্ধ হয়ে যায় জেলার অধিকাংশ পাম্প। ফলে তেল কিনতে পারেন না শত শত মোটরসাইকলচালক।

মোটরসাইকেল ছাড়াও ট্রাক, প্রাইভেটকার সহ অন্যান্য যানবাহনের চালকদেরও পাম্পে অপেক্ষা করতে দেখা যায়। এসময় বিশৃঙ্খলা এড়াতে বিভিন্ন পাম্প এলাকায় পুলিশের টহল বাড়ানো হয়।

তেল কিনতে আসা এক ব্যক্তি বলেন, হঠাৎ তেলের দাম বেড়েছে শুনে পাম্পে এসেছি। তবে যে ভিড় দেখছি, তাতে মনে হয় না ভাগ্যে তেল জুটবে।

খায়রুল ইসলাম নামের আরেকজন বলেন, সরকার ঘোষণা দিয়েছে রাত ১২টার পর থেকে তেলের দাম বাড়বে। কিন্তু পাম্পগুলোতে তেল না দিয়ে শেষ হয়ে যাওয়ার অজুহাতে আধঘণ্টা আগেই তেল বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে। আমাদের দাবি একটাই, তেল দিতে হবে। কারণ সকালে অফিসের কাজে বিভিন্ন জায়গা যাওয়া লাগে। তেল না পেলে গন্তব্যে যেতে পারবো না।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সোহেল রানা বলেন, বিশৃঙ্খলা এড়াতে পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে।

রংপুর : দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ঘোসণা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই রংপুরে পেট্রলপাম্প বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে তেল কিনতে গিয়ে বিপাকে পড়েন গ্রাহকরা। একপর্যায়ে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন তারা। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এর আগে শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয় সরকার। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে জ্বালানি তেলের বর্ধিত দাম কার্যকরের কথা থাকলেও আগেভাগেই পাম্প বন্ধ করে দেওয়ায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

তেল কিনতে আসা রাব্বি নামে এক মোটরসাইকেলচালক বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে, রাত ১২টার পর কার্যকর হবে। কিন্তু রাত ১০টার মধ্যে রংপুরের সব ফিলিং স্টেশন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আরেক বিক্ষোভকারী মকবুল মিয়া বলেন, রাত পোহালে প্রায় দ্বিগুণ লাভ, এই আশায় রাত ১২টা বাজার আগেই ফিলিং স্টেশনের মালিকরা তেল দেওয়া বন্ধ করে দিলেন। কিন্তু প্রশাসন চুপচাপ। তাই আমরা রাস্তা বন্ধ করে প্রতিবাদ করছি।

ফিলিং স্টেশনে তেল নিতে আশা রবিউল নামে এক ক্রেতা বলেন, মোটরসাইকেলের তেল শেষ হওয়ায় তেল নিতে এসেছিলাম। এসে দেখি অনেকেই তেল না পাওয়ায় বিক্ষোভ করছেন। আমি নিজেও যেহেতু ভুক্তভোগী, তাই আমিও বিক্ষোভে অংশ নিয়েছি।

রংপুর মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম বলেন, এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। সড়কে যানচলাচল করছে।

বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে এটি কার্যকর হবে। নতুন দাম অনুযায়ী ডিজেল ও কেরোসিন প্রতি লিটার ১১৪ টাকা, অকটেন ১৩৫ এবং পেট্রল ১৩০ টাকা করা হয়েছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System