• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিলে প্রতিবাদ জানাবে রাশিয়া


নিজস্ব প্রতিবেদক  ডিসেম্বর ৭, ২০২৩, ০৩:১৭ পিএম
বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিলে প্রতিবাদ জানাবে রাশিয়া

ঢাকা: বাংলাদেশে যেকোনো ধরনের মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে রাশিয়া থাকবে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার ভি মান্টিটস্কি।

বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বাধীনতা সাংবাদিক ফোরাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান। বক্তব্যের শুরুতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে রাশিয়ার সমর্থনের কথা উল্লেখ করেন রাষ্ট্রদূত। পাশাপাশি বর্তমানে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও একাধিক প্রকল্পে সমর্থনের বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ করেন তিনি।

রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে যেকোনো ধরনের মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে রাশিয়া থাকবে। এছাড়া বাংলাদেশের বিরুদ্ধে পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞার মতো যেকোনো বেআইনি পদক্ষেপের বিরুদ্ধেও থাকবে মস্কো।

আলেক্সান্ডার ভি মন্টিটস্কি বলেন, রাশিয়া এখন বাংলাদেশে রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্রে কাজ করছে। এরপর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ নিয়েও কাজ করবে। এই সম্পর্ক অনেক দূর কথা হয়েছে। এই বিষয়ে বাংলাদেশ সরকার আরও ভালো জানাতে পারবে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, গাজায় যখন মানুষ মারা যায় তখন পশ্চিমারা কিছু বলেন না; অথচ ইউক্রেনে কিছু হলে এখানে তারা পত্রিকায় আর্টিকেল প্রকাশ করে। এটা দ্বিচারিতা ছাড়া কিছুই না।

এর আগে আমেরিকা বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করছে বলে অভিযোগ করে মস্কো। তবে এই অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে ওয়াশিংটন। 

গত ২৩ নভেম্বর মস্কোতে এক ব্রিফিংয়ে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা অভিযোগ করেন, ঢাকায় সরকারবিরোধী সমাবেশে বিরোধীদলকে ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস সহায়তা করেছেন।

মারিয়া জাখারোভা বলেন, ‘অক্টোবরের শেষে বাংলাদেশে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস সরকারবিরোধী সমাবেশ আয়োজনের পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করতে স্থানীয় বিরোধী দলের একজন সদস্যের সঙ্গে দেখা করেন। এই ধরনের কাজ অভ্যন্তরীণ বিষয়ে স্থূল হস্তক্ষেপের চেয়ে কম কিছু নয়।’

রাশিয়ার তোলা এ অভিযোগ অস্বীকার করে জন কিরবি বলেন ‘বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ ভিত্তিহীন। এটি রাশিয়ার অপপ্রচার। আমরা বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। আমাদের রাষ্ট্রদূত সে লক্ষ্যেই কাজ করছেন। বাংলাদেশে গণতন্ত্রের জন্য সরকার, বিরোধী দল, সিভিল সোসাইটি সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।’

এমএস

Wordbridge School
Link copied!