• ঢাকা
  • শনিবার, ২১ মে, ২০২২, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

বিএনপির এমপি হারুনের বক্তব্যে সংসদে উত্তেজনা


নিজস্ব প্রতিনিধি জানুয়ারি ১৭, ২০২২, ০২:০৪ পিএম
বিএনপির এমপি হারুনের বক্তব্যে সংসদে উত্তেজনা

ফাইল ছবি

ঢাকা : সদ্য অনুষ্ঠিত হওয়া নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন নিয়ে তুলনামূলক কম বিতর্ক হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ। 

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) একাদশ জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশনে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

হারুনুর রশিদ বলেন, গতকাল নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন হয়েছে। এই নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক তুলনামূলক কম হয়েছে। কিন্তু এখানে মাত্র ৫০ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে। গত ৩০ নভেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ৫ নভেম্বর আমাদের ইউপি নির্বাচনগুলোও হয়েছে। আমি গত অধিবেশনে আবেদন করেছিলাম। অন্তত পক্ষে আমার জনগণ যাতে ভোট দিতে পারে। এটার নিশ্চয়তা চেয়েছিলাম। প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলাম। ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলাম। আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলেছিলাম।

হারুন বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকায় ভোটের দিন ৫০ জন সাংবাদিকের সামনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে কথা বলেছি। সেই দিন কোনো নির্বাচন হয়নি। ইভিএমে ভোট হয়েছে। সেখানে ব্যাজ লাগানো, কেউ বলে ইভিএম মনিটর, কেউ টেকনিশিয়ান। আমি তার (সিইসি) সঙ্গে কথা বলেছিলাম, উনিও বলছিলেন গোপন কক্ষেও লোক?

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের ব্যাপারে জনগণের আগ্রহ ও উৎসব একেবারেই নেই। প্রধানমন্ত্রী আলোচনা অংশগ্রহণ করবেন।

বিএনপি দলীয় এই সংসদ সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী সরকারের তিনবছর পূর্তিতে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছিলেন। সেখানে সুস্পষ্ট বলেছিলেন দুর্নীতিবাজ যে হোক ছাড় দেওয়া হবে না। এটা সুনির্দিষ্টভাবে বলেছিলেন। দুর্নীতির সংজ্ঞা হচ্ছে অসদুপায় অবলম্বন করা। আপনি অসাদুপায় অবলম্বন করে নির্বাচন করেন। অসাদুপায় অবলম্বন করে নিয়োগ পান, ভর্তি হোন কিংবা যেকোন জায়গায় কর্ম বাস্তবায়ন করেন। এটা আমাদের ইসলামে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এই সময় সংসদে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। হারুন সরকারদলীয় সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে বলেন, এত অধৈর্য হয়েন না প্লিজ। এত অধৈর্য হচ্ছেন কেন? যা সত্য, তা বলার অন্তত সুযোগ স্পিকার আমাকে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করবো। আমার নির্বাচনী এলাকায় যে পৌর নির্বাচন হয়েছে... তার যে অনিয়ম ও দুর্নীতি হয়েছে... এর সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন কি না? এটা আমার দাবি। তাহলে কেন আমরা সংসদে থাকবো? আমি আপনার কাছে প্রশ্ন রাখতে চাচ্ছি এই কারণে, যারা দায়িত্বে রয়েছেন...আমার সঙ্গে কথা বলেছেন... স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, সড়ক পরিবহন মন্ত্রী, পুলিশ, নির্বাচন কমিশন কথা দিয়েছিল। তারপরও নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি।

এইসময় স্পিকার তার মাইক বন্ধ করে দেন।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System