• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

শপিংমলে বিরহের গান শুনে নারীর তাণ্ডব


আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অক্টোবর ১০, ২০২১, ০৮:৪০ পিএম
শপিংমলে বিরহের গান শুনে নারীর তাণ্ডব

ফাইল ছবি

ঢাকা: প্রত্যেক মানুষের রুচি ও পছন্দ কিন্তু আলাদা। কারও ক্লাসিক্যাল গান পছন্দ, কারও রক, তো কারও আবার পছন্দ গজল। দুঃখের গান শুনতেও অনেকে পছন্দ করেন। তবে মার্কিন নারীর যে, তাতে এত আপত্তি থাকতে পারে তা বোঝার সাধ্য আগে থেকে শপিংমলের কর্মচারীদের ছিল না। 

সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়ার প্যারাডাইস ফ্রুট মার্কেটে ঘটেছে এক আশ্চর্য ঘটনা।

শপিংমলে কেনাকাটা করতে গেছেন মার্কিন এক নারী। সেখানে কেনাকাটা করার সময় হঠাৎ তার কানে ভেসে এলো বিরহের গান।এতেই তেলে-বেগুনে রেগে প্রায় আগুন ওই নারী। শপিংমলে রীতিমতো তাণ্ডব চালাতেন শুরু করেন তিনি। চিৎকার-চেঁচামেচি জুড়ে দেন, কর্মীরাও এসে তাকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে, লাভ বদলে ক্ষতিই বেশি হয়।

তার ভাষ্য অবিলম্বে সেই গান বন্ধ করে অন্য গান চালাতে হবে। কর্মীরা তাকে জানান, এত দ্রুত প্লে-লিস্ট পাল্টানো সম্ভন নয়। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে মার্কিন ওই নারী শপিংমলের কর্মীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন।

অবশেষে তাকে থামাতে শেষে পুলিশ ডাকতে আনেন শপিংমলের ম্যানেজার। পুলিশ এসেও নারীকে শান্ত করতে পারেনি। বরং তার রাগ সপ্তমে পৌঁছে যায় তার। উপস্থিত পুলিশের এক নারী কর্মকর্তা তাকে ব্যবহার সংযত করতে বলতেই তার ওপরে চিৎকার করতে থাকেন মার্কিন ওই নারী।

পুলিশ কর্মকর্তা তাকে মলে থেকেই বিষয়টি মিটিয়ে নিতে বলেছিলেন। তার জেরে পুলিশের নারী কর্মকর্তা বিরুদ্ধেই পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ আনেন। তাকে মল থেকে বার করে দেওয়ার চেষ্টা চলে বলেও অভিযোগ করেন। এরপরই ওই নারীকে আটক করা হয়।

জেলহাজতে থেকেও নারীর ব্যবহারে কোনও পরিবর্তন আসেনি। জামিনে ছাড়া পেয়ে পুলিশ স্টেশনে তাণ্ডব করতে থাকেন তিনি। সেখানেও গালিগালাজ করতে থাকেন। আবারও তাকে আটক করা হয়। দ্বিতীয়বার হুঁশিয়ারি দিয়ে ছাড়া হয় মার্কিন ওই নারীকে। জামিনের বদলে মোটা অর্থও জরিমানা করা হয়েছে।

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System