• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ঈদে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয়ে লাশ হলেন ৯ জন


নিজস্ব প্রতিবেদক এপ্রিল ১১, ২০২৪, ১০:৩৬ পিএম
ঈদে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয়ে লাশ হলেন ৯ জন

ঢাকা : ঈদের দিন মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয়ে পঞ্চগড়, নেত্রকোণা, নরসিংদী ও মানিকগঞ্জে ৯ জন নিহত হয়েছেন। 

পঞ্চগড়ে নিহত ৩

ঈদে পঞ্চগড়ে ঘুরতে বের হয়ে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত আরো তিনজন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে দেবীগঞ্জ উপজেলার পৌরসভার নতুনবন্দর এলাকায় আঞ্চলিক মহাসড়কে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত সাব্বির হোসেন (১৬) কালিগঞ্জ ইউনিয়নের লোহাগাড়া শুপাড়িতোলা গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে ও একই এলাকার বাসেত আলীর ছেলে কাউছার আলী (১৫)। সম্পর্কে তারা চাচা-ভাতিজা। নিহত একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ি থেকে ভাতিজা কাউছারকে মোটরসাইকেলে নিয়ে ঘুরতে বের হয় সাব্বির। এ সময় দেবীগঞ্জ বাজার থেকে আরো একজনকে সাথে নিয়ে তিনজনে সোনাহার বাজারের দিকে যাচ্ছিল। যাওয়ার পথে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি মোটরসাইকেলের সাথে তাদের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম বলেন, এ ঘটনায় সড়ক দুর্ঘটনা আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নেত্রকোণায় নিহত ৩

নেত্রকোণার সীমান্তবর্তী উপজেলা কলমাকান্দায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তিনজন মারা গেছে। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার বর্ডার রোড নামে পরিচিত লেংগুড়া ইউনিয়নের চিংন্নী বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন, উপজেলার কয়ড়া গ্রামের কবির মিয়ার ছেলে মো.হৃদয় মিয়া (২৩), আমতলা গ্রামের জয়নাল মিয়ার ছেলে মো. হলিম হোসেন (১৮) ও হাটশিরা গ্রামের মজিবুরের ছেলে মো. নবী হোসেন (৩৫)।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ঈদুল ফিতরের নামাজ পড়ে পাহাড়ে ঘুরতে যায় তারা। পরে বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার লেংগুড়া ইউনিয়নের (চিংন্নী বাজার) এলাকায় (বর্ডার রোডে) মোটরসাইকেলের চাকা পাংচার হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে যায়। মোটরসাইকেলে থাকা তিনজনই গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

কলমাকান্দা থানার ওসি মোহাম্মদ লুৎফুল হক জানান, সীমান্ত এলাকায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তিন জন মারা গেছে। নিহতদের মরদেহের সুরতহালের রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়া মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মানিকগঞ্জে নিহত ১

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ঈদ উপলক্ষে তিন বন্ধু ঘুরতে বেড়িয়ে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় লাশ হয়ে ফিরলেন শাকিল (২৩)। নিহত শাকিল উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের আঠালিয়া গ্রামের মো. কাশির ছেলে।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন বেলা ২টার দিকে হেমায়েতপুর-সিংগাইর- মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের জায়গীর গ্রামের আবেদ মুন্সীর বাড়ির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ঈদ উপলক্ষে শাকিল তার দুই বন্ধুকে নিয়ে দুপুরে মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয়। এক পর্যায়ে আবেদ মুন্সির বাড়ির সামনে একটি কাটা সিএনজির সঙ্গে তাদের মোটরসাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে নিহত হয় শাকিল এবং আহত হয় শুভ ও মকবুল। পরে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে।

সিংগাইর থানার ওসি মোঃ জিয়ারুল ইসলাম বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

নরসিংদীতে নিহত ২

নরসিংদীতে যাত্রীবাহী বাস ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন একজন।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর দগরিয়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, নারায়নগঞ্জ জেলার গাউছিয়া শাওগাট এলাকা শাহিন (২৩) ও সানি (২২) ।

নিহতের স্বজনরা জানায়, নারায়নগঞ্জ জেলার গাউছিয়া শাওগাট এলাকা থেকে তিন বন্ধু শাহিন, সানি ও সায়েম ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে ভৈরবে বেড়াতে যায়। বেড়ানো শেষে তারা গাউছিয়া বাড়ি ফিরছিল। মোটরসাইকেলটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর দগরিয়া এলাকায় পৌঁছলে একটি বাসকে ওভারটেক করার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি যাত্রীবাহী বাসের সাথে সংঘর্ষ হয়। এ সময় মোটরসাইকেলটি বাসের নিচে চলে যায়।

এতে ঘটনাস্থলেই সানি ও শাহিন মারা যায়। আহত হয় সায়েম। তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী ১০০ শয্যা বিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সায়েমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেন।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ মো. ইলিয়াস জানিয়েছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন মরা গেছে। তাদের মরদেহ জেলা হাসপাতালে রয়েছে।

এমটিআই

Wordbridge School
Link copied!