• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮
abc constructions

ফখর-বাবরের ব্যাটে বিশাল টার্গেট পাকিস্তানের


ক্রীড়া ডেস্ক এপ্রিল ৭, ২০২১, ০৯:১৬ পিএম
ফখর-বাবরের ব্যাটে বিশাল টার্গেট পাকিস্তানের

ছবি : ইন্টারনেট

ঢাকা : আগের ম্যাচে অবিশ্বাস্য এক ইনিংসের ১৯৩ রানের বিশাল স্কোর করেও দলকে জেতাতে পারেননি পাকিস্তানি ওপেনার ফাখর জামান। যদিও ওই ম্যাচে তাকে আউট করার ধরণ নিয়ে তুমুল সমালোচনার শিকার হতে হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকান উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি কককে। সেই ফাখর জামানের ব্যাট আবারও বেশ চওড়া হলো আজ দক্ষিণ আফ্রিকান বোলারদের সামনে। 

সেঞ্চুরিয়নের সুপার স্পোর্টস পার্ক মাঠে বুধবার (৭ এপ্রিল) আবারও সেঞ্চুরি হাঁকালেন পাকিস্তানি এই ওপেনার। ১০৪ বলে ৯ বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কার মার মেরে ১০১ রান করে আউট হয়েছেন তিনি। শুধু ফাখর জামানই নন, আজ ব্যাটে ঝড় তুলেছেন অধিনায়ক বাবর আজমও। 
আরেক ওপেনার ইমাম-উল হকও করেছেন হাফ সেঞ্চুরি। সবচেয়ে বড় কথা, শেষ মুহূর্তে জন ট্রেভর স্মাটসকে পিটিয়ে ঝড় তুলেছিলেন হাসান আলিও। এই ইনিংসগুলোর ওপর ভর করে আজ স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে ৩২১ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে পাকিস্তান।

যদিও প্রথম দিকের খেলা দেখে মনে হয়েছিল তাদের স্কোর ৩৩০+ হতে যাচ্ছে। পরে মিডল অর্ডারে ধস নামায় মনে হল যে, তিনশ করতেই ভাগ্যের সাহায্য দরকার। কিন্তু শেষমেশ ৭ উইকেটে ৩২০ তুলতে সক্ষম হয়েছে দলটি।

বাবর আযমের ইনিংসটি ছিল অধিনায়কোচিত মাস্টারক্লাস। ৮২ বলে ৭টি চার ও ৩ ছক্কায় ৯৪ রানের অনিন্দ্য সুন্দর ইনিংস খেলেছেন তিনি। আর টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি হাকিয়েছেন ফখর জামান। ১০৪ বলে ৯টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১০২ করে আউট হন এই অপেনার। তবে হাসান আলীর অবিশ্বাস্য ১১ বলে ৩২ রানের অপরাজিত ইনিংসটি ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। চারটি ছক্কা ও একটিমাত্র চারে সাজানো ইনিংসটি আশ্চর্যজনক প্রেরণা দিয়েছে। 

পেস সমৃদ্ধ প্রোটিয়া বোলাদের মধ্যে এদিন স্পিনাররাই রাজত্ব করেন। ৪৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেয়া কেশব মহারাজই ছিলেন সেরা বোলার। ৪৮ রানে ২ উইকেট নিয়ে খুব বেশি পিছিয়ে ছিলেন না মার্করাম। শুরুতে, মধ্যভাগে এবং ডেথ ওভারে যে বোলিং তিনি করেছেন আজ, তা পার্ট টাইম বোলার হিসেবে তার পক্ষে অসামান্য।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School